মূহুরী-সিলোনিয়া নদীর ৭ অংশে ভাঙ্গন পরশুরাম-ফুলগাজীর ৫০ গ্রাম প্লাবিত - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

মূহুরী-সিলোনিয়া নদীর ৭ অংশে ভাঙ্গন পরশুরাম-ফুলগাজীর ৫০ গ্রাম প্লাবিত



এম.এ.হাসান,পরশুরাম(ফেনী)থেকে, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

প্রবল বর্ষন ও ভারতের পাহাড়ী ঢলের পানির চাপে মুহুরী ও সিলোনিয়া নদীর বেড়িবাঁধের ৭অংশে ভয়াবহ ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়েছে।এতে পরশুরাম ও ফুলগাজী উপজেলার অন্তত ৫০ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।মুহুরী ও সিলোনিয়া নদীর পানি বিপদসীমার ১০০ সে.মি উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে ভাঙ্গতে থাকে একের পর এক বেড়িবাঁধ।
সরেজমিনে জানা গেছে,সিলোনিয়া নদীর সুবার বাজারের পাশে বেড়িবাঁধের ৬ টি অংশে ব্যাপক আকারের ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে।এর মধ্যে সুবার বাজার-গদানগর সড়কে ১টি ও বাজারের উত্তর পাশে বেড়িবাঁধের পশ্চিম পাশে ৫টি  অংশে ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়েছে।বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে সুবার বাজারের একাংশ,উত্তর মনিপুর.মধ্যম মনিপুর গদানগর,কালিকৃষ্ণ নগর, পুর্বসাহেবনগরসহ ১০ গ্রাম। এদিকে বিকাল ৫টার দিকে ফুলগাজীর কিসমত ঘনিয়া মোড়া গ্রামে মুহুরী নদীর বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে ফুলগাজী বাজার,কিসমত ঘনিয়া মোড়া,জয়পুর,পূবর্ ঘনিয়া মোড়া,পশ্চিম ঘনিয়া মোড়া, সাহাপাড়া, বৈরাগপুর , বরইয়া,দক্ষিন দৌলতপুর, উত্তর দৌলতপুর, পেচিবাড়িয়া, কহুমাসহ ৪০গ্রাম পানিতে তলিয়ে গেছে।
সূত্রমতে,বন্যার পানিতে ভেসে গেছে প্রায় ৫ শতাধিক পুকুরের মাছ,১০ হাজার একর জমিতে লাগানো আমন ফসল।এছাড়া বন্যার পানির তোড়ে জয়পুর ও কিসমত ঘনিয়া মোড়া গ্রামের প্রায় ২০টি ঘর ভেসে গেছে।বহু মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে অবস্থান নিচ্ছে।
জয়পুরগ্রামের মেহেরুন নেছা ও হাবিবুর রহমান জানান,যেভাবে পানি আসছে তাতে আমাদের জীবন রক্ষা করাই কঠিন হয়ে পড়বে। ফেনী পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী রমজান আলি প্রামানিক জানান,মুহুরী-সিলোনিয়া নদীর বেড়িবাঁধের ভাঙ্গন কবলিত অংশগুলো চিহ্নিত করে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে স্থানীয় প্রশাসনকে বলা হয়েছে।
সর্বশেষ বিকাল সাড়ে ৫টায় এ রিপোর্ট লেখার সময় মুহুরী ও সিলোনিয়া নদীর বেড়িবাঁধের উপর দিয়ে বন্যার পানি প্রবাহিত হচ্ছে।্মানুষের মাঝে আতংক-উৎকন্ঠা বিরাজ করছে।


এ সম্পর্কিত আরো খবর

পরশুরাম এর অন্যান্য খবরসমূহ
ফেনী এর অন্যান্য খবরসমূহ