মনোহরগঞ্জে চেয়ারম্যান কর্তৃক মহিলা সদস্য লাঞ্ছিতের ঘটনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে বিচার চেয়ে লিখিত অভিযোগ - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

মনোহরগঞ্জে চেয়ারম্যান কর্তৃক মহিলা সদস্য লাঞ্ছিতের ঘটনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে বিচার চেয়ে লিখিত অভিযোগ



মনোহরঞ্জ থেকে, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার বিপুলাসার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান দুলাল কর্তৃক ওই ইউপির মহিলা সদস্য বিবি কুলছুমকে লাঞ্ছিত করার ঘটনা ঘটেছে। লাঞ্ছিত ওই ইউপি মহিলা সদস্য সুষ্ঠু বিচার চেয়ে মনোহরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম বানু শান্তি বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন।

 

অভিযোগ সূত্র জানা যায়, গত ২৭ অক্টোবর ২০১৮ইং তারিখ সকাল ১১টায় বিপুলাসার ইউপির মহিলা সদস্য বিবি কুলছুম ইউনিয়ন পরিষদে আসলে ইউপি সচিব তাকে রেজিস্ট্রারের খালি পাতায় স্বাক্ষর দিতে বলে। এসময় বিবি কুলছুম রজিস্ট্রারের খালি পাতায় স্বাক্ষরের কারণ জিজ্ঞাস করলে সচিব তাকে ধমক দিয়ে বলেন আপনার এতকিছু জানার দরকার আছে কী? স্বাক্ষর দিতে বলছি স্বাক্ষর দেন।

 

এ সময় অফিসে উপস্থিত থাকা ১,২,৩ ওয়ার্ড মহিলা মেম্বার শেফালি, ৪,৫,৬ ওয়ার্ড মহিলা মেম্বার বিলকিছ ও ৩নং ওয়ার্ড মেম্বার শাহ আলমের সামনে চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান দুলালকে বিষয়টি জানান বিবি কুলছুম। চেয়ারম্যান বিষয়টি শুনে বিবি কুলছুমের উপর আরো রেগে যান এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। সাথে সাথে ওই মহিলা মেম্বারকে ধমক দিয়ে অফিস থেকে বের হয়ে যাওয়ার জন্য চেয়ারম্যান বলেন।

 

চেয়ারম্যান আরো বলেন পরিষদ চালাতে আমার সকল মেম্বারের প্রয়োজন নাই। ৭ জন হলেই আমার পরিষদ চলবে। কিন্তু বিবি কুলছুম অফিস থেকে বের না হওয়ায় চেয়ারম্যানের নির্দেশে ইউনিয়ন পরিষদের দোপাদার তাকে জোর করে অফিস থেকে বের করে দেয়। এ সময় উপস্থিত মেম্বারগণ বিবি কুলছুম উদ্ধার করে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন।

 

এ ঘটনা এলাকা ছড়িয়ে পড়লে জনসাধারণের মধ্যে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়। চেয়ারম্যান ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন বলে জনসাধারণকে বলতে শুনা যায়। বিবি কুলছুম বিষয়টি প্রথমে ইউপির সকল মেম্বার ও মহিলা মেম্বার ও স্থানীয় রাজনীতিকদের অবহিত করান।

 

গত ১ নভেম্বর লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনাটির তদন্ত সাপেক্ষে সুষ্ঠু বিচারের চেয়ে মনোহরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম বানু শান্তির বরবার লিখিত ও স্বাক্ষরিত অভিযোগ করেন বিপুলাসার ইউপির ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ড থেকে নির্বাচিত মহিলা মেম্বার বিবি কুলছুম।

 

এ বিষয়ে বিপুলাসার ইউপির কয়েকজন সদস্যদের (মেম্বার) সাথে যোগাযোগ করলে তারা জানান, ঘটনাটি সত্য। তিনি (চেয়ারম্যান) এর পূর্বেও এ রকম আচরণ কয়েকজন মেম্বারের সাথে করেছেন। আমরা চাই বিবি কুলছুমের অভিযোগের আলোকে সে যেন সুষ্ঠু বিচার পায়।

 

এ বিষয় বিপুলাসার ইউপির চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান দুলালের সাথে কথা বললে তিনি জানান আমাদের ইউনিয়ন পরিষদের মাসিক সভার রেজ্যুলেশন খাতায় স্বাক্ষর করার জন্য সচিব বিবি কুলছুমকে বললে সে অসম্মতি জানায়। পরে আমি নিজেও তাকে স্বাক্ষর করতে বললে সে আমার সাথে অমার্জিত ভাষায় কথা বললে এক পর্যায়ে তার সাথে আমার কিছু কথা কাটাকাটি হয়।

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম বানু শান্তির সাথে কথা বললে তিনি জানান আমি বিষয়টির লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। চেয়ারম্যানকে ডেকেছি। তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।



এ সম্পর্কিত আরো খবর

মনোহরগঞ্জ এর অন্যান্য খবরসমূহ