চট্টগ্রাম নগর উত্তর শিবিরের ঐতিহাসিক কুরআন দিবস’র আলোচনা সভায় অনুষ্ঠিত - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

চট্টগ্রাম নগর উত্তর শিবিরের ঐতিহাসিক কুরআন দিবস’র আলোচনা সভায় অনুষ্ঠিত



প্রেস বিজ্ঞপ্তি, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির’র কেন্দ্রীয় স্কুল কার্যক্রম সম্পাদক রাজিবুর রহমান পলাশ বলেন মহান আল্লাহ পৃথিবীতে মানবজাতি সৃষ্টি করে তাদের হেদায়াতের জন্য জীবন বিধান হিসেবে আল-কুরআন নির্দিষ্ট করে দিয়েছেন। কিন্তু মুসলমান নামধারী কতক কুচক্রী মহল নিজেদের অবৈধ ফায়দা হাসিল করতে গিয়ে পবিত্র কুরআনকে তাদের মতো করে কতগুলো নির্ধারিত ক্ষেত্রের মধ্যে আবদ্ধ করে রাখতে চাই। তাদের এহেন নির্লজ্জ স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য তারা নানা রকম মনগড়া,উদ্ভট যুক্তি উপস্থাপন করে যা একেবারেই বানোয়াট ও হাস্যকর। কুরআন বিরোধীদের বিরোধীতার কারণে সমাজে আজ সর্বত্র হানাহানি, হতাশা, দুঃখ, গ্লানি যেন জ্যামিতিক হারে বেড়ে চলেছে। এর যেন কোন সমাপ্তি-পরিসমাপ্তি নেই। অথচ মহান আল্লাহ এ ধরায় তাঁর সৃষ্টির সেরা জীব সমূহ কীভাবে দিনযাপন করবে তা পবিত্র কুরআনে সুস্পষ্ট করে বলে দিয়েছেন। কিন্তু অতীব পরিতাপের বিষয় মানুষ সর্বদা জাগতিক লোভ লালসায় মগ্ন থাকতে গিয়ে ¯্রষ্টার দেয়া বিধান পালনে হীনমন্যতা দেখাচ্ছে। এরা অত্যন্ত সুক্ষ¥ভাবে আমাদের এ প্রিয় মাতৃভূমি থেকে ইসলাম ও ইসলামী আকীদা মুছে দেয়ার জন্য সদা তৎপর রয়েছে। এ লক্ষ্যে তারা যেসব ব্যক্তিবর্গ সমাজে ইসলামের সুমহান বানী পৌঁছে দেয়ার কাজ করে যাচ্ছে তাদের উপর চালাচ্ছে নির্মম নির্যাতন। তাই ব্যক্তি, সমাজকে প্রকৃতির ভয়াবহ আযাবসহ সকল প্রকার অন্যায়-অনাচার ও পরকালীন শাস্তি থেকে মুক্তি লাভের জন্য কুরআনের অনুশীলনই হলো একমাত্র পথ।

ইসলামী ছাত্রশিবির ঘোষিত ঐতিহাসিক কুরআন দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম মহানগরী উত্তর শিবির আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আজ (১১/০৫/’১৮) এসব কথা বলেন। নগর উত্তর সেক্রেটারী আ স ম রায়হান’র পরিচালনায় এতে আরো বক্তব্য রাখেন শিবির নেতা কামাল হোসাইন, আবু জোবায়ের, আহসান উল্লাহ প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন মানবতার দূত হযরত মুহম্মদ (স.) তৎকালীন মরুর বর্বর, অন্ধকার জগতে কুরআনের রাজ কায়েমের মধ্য দিয়ে মদিনায় একটি সুন্দর, সভ্য আধুনিক দেশে হিসেবে বিশ্ব দরবারে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছিলেন। একই ভাবে সন্ত্রাস, দুর্নীতিমুক্ত সমাজ গঠনে সর্বত্র কুরআন চর্চার মাধ্যমেই আমদের দেশেও সৎ, যোগ্য, আদর্শ নাগরিক তৈরি করতে পারব বলে দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এজন্য বক্তারা যত বেশি সম্ভব মাতৃভাষায় কুরআন চর্চা ও তা বাস্তব জীবনে অনুশীলন করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।


এ সম্পর্কিত আরো খবর

চট্টগ্রাম এর অন্যান্য খবরসমূহ
রাজনীতি এর অন্যান্য খবরসমূহ