লাকসাম - নোয়াখালী রেলপথে রেললাইনের নীচে দিয়ে ড্রেজিংপাইপ; রেলের জায়গায় ভরাট - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :
ভয়াবহ দুর্ঘটনার আশংকা

লাকসাম – নোয়াখালী রেলপথে রেললাইনের নীচে দিয়ে ড্রেজিংপাইপ; রেলের জায়গায় ভরাট



এম, এ মান্নান লাকসাম(কুমিল্লা), (খবর তরঙ্গ ডটকম)

লাকসাম -নোয়াখালী রেলপথের লাকসাম উপজেলা বাটিয়াভিটা এলাকায় আবারও রেলপথের ভেতর দিয়ে ড্রেজিং পাইপ স্থাপন করে বালি নিয়ে রেলওয়ের জায়গায় ভরাট শুরু করেছে কতিপয় ভূমিদস্যু। যার ফলে আবারও হুমকির মুখে পড়েছে রেল পথটি। যে কোন মুহূর্তে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

জানা যায়, লাকসাম- নোয়াখালি রেলপথের উপজেলা উওরদা ইউপির ভাটিয়াবিটা এলাকায় নোয়াখালি সড়কের পশ্চিম পার্শ্বে ও নোয়াখালি রেললাইনের পূর্ব পাশে রেল জায়গায়টি তে স্থানীয় মিজানসহ কয়েক জন নেতৃত্বে গত ২/৩ দিন ধরে রেল লাইনের শ্লীপার নীচ দিয়ে ড্রেজার পাইপ স্থাপন করে ভরাট শুরু করেছে রেলওয়ের জায়গাটি।এমন ভাবে রেলপথের শ্লীপারের নীচে ড্রেজারের পাইপ স্থাপন করা হয়েছে,তার উপর রেলের পাথর দিয়ে পাইপটি চাপা দিয়ে রেখেছে। কেউ যেনো দেখতে না পায়। এর আগে গত বছরের শেষ দিকে একই চক্র পর পর দু’বার রেল পথের ভিতর দিয়ে পাইপ স্থাপন করে। এ নিয়ে বিভিন্ন পর্যায়ে লেখালেখির পর রেল কর্তৃপক্ষের টনক নড়ে। তখন তারা অভিযান চালিয়ে এসব পাইপ উচ্ছেদ করে। দেখা যায় পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় এবার তারা একই স্থানে আবারও রেলপথ শ্লীপার নীচ দিয়ে পাইপ স্থাপন করেছে। তবে এবার লোহার পাইপ নয়, প্লাস্টিকের পাইপ স্থাপন করা হয়েছে যাতে উচ্ছেদ অভিযান করলে লোকসান কম হয়। রেলওয়ে বিভাগের কিছু অসাধু কর্মকর্তাদের যোগসাজস করে কাজ করার সুযোগ করে নিয়েছে। যে কারণে এ রেলপথটি প্রতিনিয়ত দেখাশোনার দায়িত্বপ্রাপ্তরা দেখেও না দেখার ভান করে বিষয়টি এড়িয়ে চলছে।

লাকসাম আইডব্লিওডি কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ বলেন, খবর শুনেছি দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষযটি দেখে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। রেলওয়ে কানুনগো কাউসার আহমেদ বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেব।

রেলওয়ের স্টেশন মাষ্টার কামরুল হাসান বলেন, আমি এই মাত্র খবর শুনেছি বিষয়টি আইডব্লিওডিকে অবগত করেছি। তারা বিষয়টি দেখবে।


এ সম্পর্কিত আরো খবর

কুমিল্লা এর অন্যান্য খবরসমূহ
লাকসাম এর অন্যান্য খবরসমূহ