নাঙ্গলকোটে চায়ের সঙ্গে ঔষধ মিশিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে অচেতন - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

নাঙ্গলকোটে চায়ের সঙ্গে ঔষধ মিশিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে অচেতন



জামাল উদ্দিন স্বপন, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার ঢালুয়া ইউপির সিঙ্গরিয়া গ্রামে  আবুল কালাম নামের এক ভাসুর ও এক চা দোকানদার উজ্জলের  বিরুদ্ধে। ছোট ভাইয়ের বাহারাইন প্রবাসীর স্ত্রীকে চায়ের সঙ্গে ঔষধ মিশেয়ে অসৎ উদ্দেশ্যে  অচেতন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।    এঘটনা স্হানীয় একটি প্রভাবশালী মহল দামাচাপা দেয়ার জন্য তৎপর হয়ে উঠেছে।স্হানীয় শালিসদাররা দফায় দফায় শালিসের আয়োজন করে।    গত বুধবার সন্ধ্যায় ওই গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।             


লম্পট ভাসুর  ওই গ্রামের মূন্সী বাড়ীর মৃত.বজলুর রহমানের ছেলে আবুল কালাম। ও চা দোকানী সিঙ্গরিয়া গ্রামের কারী বাড়ীর মৃত. মোস্তফার ছেলে সাহাব উদ্দিন উজ্জ্বল।   ইতিপূর্বে আবুল কালামের  বিরুদ্ধে নারী গঠিত নানা কেলেংকারীর অভিযোগ রয়েছে।


এলাকাবাসী সূত্র জানায়,বুধবার সন্ধ্যায় চা আনার জন্য উজ্জ্বলের চা দোকানে যায়, গৃহবধূর ছেলে মাছিম উদ্দিন সেখানে আগেই উৎপেতে থাকে গৃহবধূর ভাসুর আবুল কালাম ।  চায়ের অর্ডার করলে উজ্জ্বল ও লম্পট ভাসুর চায়ের সঙ্গে অসৎ  উদ্দেশ্য ঔষধ মিশেয়ে দেয়, মা ও ছেলে চা পান করলে মুহুর্তে অচেতন হয়ে পড়ে।


স্থানীয়রা বিষয়টি টের পেয়ে গৃহবধূ ও তার ছেলেকে  উদ্ধার করে ঢালুয়া শামীম ডাক্তারের দোকানে নিয়ে যায়। সেখান থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।                      


বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য একটি প্রভাবশালী মহল তৎপর হয়ে উঠেছে, বর্তমানে ওই গৃহবধূ আতঙ্কে দিনাতিপাত করছেন।    


নাঙ্গলকোট থানার ওসি মোঃ নজরুল ইসলাম পিপিএম মঙ্গলবার সাংবাদিকদের  বলেন, আপনাদের মাধ্যমে বিষয়টি জেনেছি গৃহবধূ অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


কুমিল্লা এর অন্যান্য খবরসমূহ
নাঙ্গলকোট এর অন্যান্য খবরসমূহ