মেয়র মুজিবুর রহমানের সাথে পৌর এলাকার সৌন্দর্য বর্ধন প্রকল্পের চুক্তি স্বাক্ষর এবার বদলে যাবে পর্যটন নগরী - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

মেয়র মুজিবুর রহমানের সাথে পৌর এলাকার সৌন্দর্য বর্ধন প্রকল্পের চুক্তি স্বাক্ষর এবার বদলে যাবে পর্যটন নগরী



সংবাদ বিজ্ঞপ্তি, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতসহ দৃষ্টিনন্দন পর্যটন স্পট নিয়ে বিশ^ দরবারে মাথা উঁচু করে থাকা কক্সবাজার এগিয়ে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষনা অনুযায়ী তাঁর বিশেষ আন্তরিকতায় এই পর্যটন নগরীকে গড়ে তোলা হবে বিশ^মানের এক্সক্লুসিভ ট্যুরিস্ট জোন হিসেবে। ইতোমধ্যে আলোর মুখ দেখা ছোট বড় প্রকল্পগুলো ছাড়াও দৃশ্যমান হচ্ছে আরো অনেক উন্নয়ন প্রকল্প। সব মিলিয়ে কক্সবাজার পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে দ্রুত সময়ের মধ্যে বদলে যাবে পর্যটনের রাজধানী খ্যাত এই কক্সবাজার। যার ধারাবাহিকতায় কলাতলী হোটেল-মোটেল জোনসহ পুরো পৌর এলাকার সৌন্দর্য বর্ধনের লক্ষ্যে কক্সবাজার পৌরসভা ও বেসরকারী বিজ্ঞাপনী প্রতিষ্ঠান ‘‘কর্পোরেট’’ এর মধ্যে ‘সৌন্দর্য বর্ধনের উন্নয়ন প্রকল্প’ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। রোববার সকালে পৌর ভবনে মেয়রের কার্যালয়ে দু’পক্ষের মধ্যে এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

 

চুক্তিপত্রে পৌরসভার পক্ষে মেয়র মুজিবুর রহমান ও বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠানের পক্ষে ‘কর্পোরেট’ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আনোয়ার হোসেন যৌথভাবে স্বাক্ষর করেন। চুক্তি অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা মেয়রের পরামর্শ এবং পরিকল্পনা অনুযায়ী দৃষ্টিনন্দন ভাষ্কর্য নির্মাণসহ বেশ কিছু সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ করবেন।
এসময় বিজয় টিভি’র চট্টগ্রাম বিভাগীয় প্রধান মো. নিজাম উদ্দিন, কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল কর, পৌরসভার প্যানেল মেয়র-৩ শাহেনা আক্তার পাখি, সচিব রাসেল চৌধুরী, মেয়র পিএ রূপনাথ চৌধুরী নাচ্চু, নির্বাহী প্রকৌশলী নূরুল আলম, প্রশাসনিক কর্মকর্তা খোরশেদ আলম, সহকারী প্রকৌশলী বাবুলসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

 

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান বলেন, পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতের শহর কক্সবাজারকে দেশী-বিদেশী পর্যটকদের কাছে আরো আকর্ষনীয় করতে সব ধরণের উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন করবে পৌরসভা। এতে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে উন্নয়ন কর্মকান্ডের অংশিদার হওয়ায় ধন্যবাদ জানান মেয়র।

 

এছাড়া বিজয় টিভি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী নোবেল ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় প্রধান মো. নিজাম উদ্দিনের সহযোগিতায় বিজ্ঞাপনী প্রতিষ্ঠান ‘কর্পোরেট’ এগিয়ে আসায় প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ সংশ্লিষ্টদেরও ধন্যবাদ জানান তিনি।

 

প্রসঙ্গত: প্রকল্পটির মিডিয়া পার্টনার হিসেবে রয়েছে স্যাটেলাইট চ্যানেল ‘বিজয় টিভি’।


এ সম্পর্কিত আরো খবর

কক্সবাজার এর অন্যান্য খবরসমূহ
মহেশখালী এর অন্যান্য খবরসমূহ