রাজধানীর বনানীতে ধর্ষণ: সাক্ষ্যগ্রহণ ২৪ জুলাই - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

রাজধানীর বনানীতে ধর্ষণ: সাক্ষ্যগ্রহণ ২৪ জুলাই



নিউজ ডেস্ক, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

রাজধানীর বনানীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রী ধর্ষণ মামলার পাঁচ আসামিকে আদালতে তোলা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত, সাক্ষ্যগ্রহণ  হবে ২৪ জুলাই।

বৃহস্পতির ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক শফিউল আজম এ অভিযোগ গঠন করেন। অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে আলোচিত এই ধর্ষণ মামলার বিচার কাজ শুরু হলো। আদালত এই মামলার সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য ২৪ জুলাই দিন ধার্য করেছেন।

ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২-এ অভিযোগ গঠনের শুনানির দিন ধার্য ছিল।

এর আগে ৯ জুলাই এই মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানির দিন ধার্য ছিল। রোববার সকাল ১০টার দিকে ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২-এর বিচারক শফিউল আজমের আদালতে আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে সাফাত আহমেদসহ পাঁচজনকে হাজির করা হয়।

অন্য আসামিরা হলেন- আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলের বন্ধু নাঈম আশরাফ, সাদমান সাকিফ, সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল হোসেন ও দেহরক্ষী আবুল কালাম আজাদ।

আদালত সূত্র জানায়, অভিযোগ গঠন হলে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হবে আলোচিত এই মামলার বিচার কার্যক্রম।

এর আগে গত ৮ জুন ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের (সিএমএম) আদালতে সাফাতসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের উইমেন সাপোর্ট অ্যান্ড ইনভেস্টিগেশন ডিভিশনের (ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার) পরিদর্শক ইসমত আরা এ্যানি।

জন্মদিনের পার্টিতে দাওয়াত দিয়ে হোটেলে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ এনে গত ৬ মে বনানী থানায় ওই পাঁচজনকে অসামি করে মামলা করেন ধর্ষণের শিকার এক ছাত্রী।

গত ২৮ মার্চ রাত ৯টা থেকে পরদিন সকাল ১০টা পর্যন্ত বনানীর হোটেল রেইনট্রিতে তাদের আটকে রেখে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করা হয় বলে মামলার আরজিতে উল্লেখ করা হয়।

ইভান ৪ দিনের রিমান্ডে

এদিকে ঢাকার বনানীতে জন্মদিনের অনুষ্ঠানের কথা বলে বাসায় নিয়ে এক টিভি অভিনেত্রীকে ধর্ষণের মামলায় গ্রেফতার ব্যবসায়ীপুত্র বাহাউদ্দিন ইভানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চার দিনের পুলিশ রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত।

ইভান প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অভিযোগ স্বীকার করে নিয়েছেন বলে ইতোমধ্যে র্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

মামলার এজহারে তিনি বলেছেন, ফেইসবুকের সূত্র ধরে ইভানের সঙ্গে তার পরিচয় এবং গত চার মাস ধরে তাদের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল।

ওই তরুণী বলেছেন, ইভানের বাসায় যাওয়ার পর জন্মদিনের অনুষ্ঠানের কোনো নমুনা তিনি দেখতে পাননি। পরে ইভান তাকে জোর করে নেশাজাতীয় পানীয় পান করানোর পর ধর্ষণ করেন। এরপর তিনি চিৎকার করলে ইভান তার ব্যাগ রেখে রাত সাড়ে ৩টার দিকে তাকে বাসা থেকে বের করে দেন।

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ইভান এর আগেও তাকে ধর্ষণ করেছিল এবং তার ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়েছিল বলেও মামলার এজাহারে অভিযোগ করেছেন ওই তরুণী।

এ বিষয়ে মুফতি মাহমুদ খান বলেন, “কিছু ভিডিও আছে, এবং সে (ইভান) বিষয়টি জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে। ধর্ষণের ওই ঘটনা ছাড়াও তার বিরুদ্ধে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের আরো কিছু তথ্য র্যাবের হাতে রয়েছে এবং সেসব বিষয়ও সে স্বীকার করেছে।”


এ সম্পর্কিত আরো খবর