বগুড়ায় ছাত্রী ধর্ষণ ও নির্যাতনের দুটি মামলার আসামি তুফান-রুমকি কারাগারে - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

বগুড়ায় ছাত্রী ধর্ষণ ও নির্যাতনের দুটি মামলার আসামি তুফান-রুমকি কারাগারে



নিউজ ডেস্ক, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

বগুড়ায় ছাত্রী ধর্ষণ ও নির্যাতনের দুটি মামলার আসামি তুফান সরকার ও নারী কাউন্সিলর মার্জিয়া আকতার রুমকির রিমান্ড ও জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে দিয়েছেন আদালত। রোববার তাদের আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বগুড়া সদর মডেল থানার পরিদর্শক (অপারেশন) আবুল কালাম আজাদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘এই চাঞ্চল্যকর মামলার প্রধান আসামি তুফান সরকার ও মার্জিয়া আক্তার রুমকিকে দুইদিনের পুলিশ রিমান্ড শেষে আমরা বিজ্ঞ আদালতে হাজির করেছিলাম। পুনরায় পাঁচ দিনের পুলিশ রিমান্ড চেয়ে আমরা আবেদন করেছিলাম। বিজ্ঞ আদালত রাষ্ট্রপক্ষ এবং আসামিপক্ষের বক্তব্য শুনে রিমান্ড নামঞ্জুর করেছেন। আসামিরা জামিনের প্রার্থনা করেছিলেন। কিন্তু বিচারক জামিন নামঞ্জুর করেছেন। তবে আসামিদের সাতদিনের মধ্যে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদেশ দিয়েছেন।’

বগুড়া শহর শ্রমিক লীগের সাময়িক বহিষ্কৃত আহ্বায়ক তুফান সরকারকে গ্রেফতারের পর পুলিশ প্রথম দফায় তিনদিন, পরে দুইদিন করে চারদিনসহ মোট সাতদিন রিমান্ডে নেয়। অন্যদিকে কাউন্সিলর রুমকিকে প্রথম দফায় তিনদিন, পরে আরো দুইদিন রিমান্ডে নেয় পুলিশ।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, আসামি তুফান সরকার ও তাঁর সহযোগীরা এসএসসি পাস এক ছাত্রীকে ভালো কলেজে ভর্তি করার কথা বলে গত ১৭ জুলাই শহরের নামাজগড় এলাকায় তাঁদের বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করেন। পরে এ ঘটনা কাউকে না জানাতে ভয়ভীতি দেখিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেন। ধর্ষণের ঘটনা ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে গত ২৮ জুলাই বিকেলে তুফান সরকারের স্ত্রী আশা ও তাঁর বড় বোন বগুড়া পৌরসভার সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলর মার্জিয়া আক্তার রুমকিসহ কয়েকজন মিলে ওই ছাত্রী ও তাঁর মাকে বেধড়ক পিটিয়ে মাথা ন্যাড়া করে দেন। তাঁদের বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।


এ সম্পর্কিত আরো খবর