মানবতার দেয়াল এখন রাজাপুরে - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :
যার আছে সে দিয়ে যান, যার নাই সে নিয়ে যান

মানবতার দেয়াল এখন রাজাপুরে



রহিম রেজা, ঝালকাঠি থেকে, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

লেখা যার আছে সে দিয়ে যান, যার নাই সে নিয়ে যান। সচ্ছল এবং দুস্থ মানুষের প্রতি এমন আবেদন জানানো লেখা সংবলিত দেয়ালটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘মানবতার দেয়াল’ দেয়ালে এমন একটি লাগানো ব্যানার দিয়ে এবার ঝালকাঠি রাজাপুরে যাত্রা শুরু করেছে মানবতার দেয়াল। অনুকরণীয় এই মানবিক কাজটি করেছে ‘সত্যের সন্ধানে ব্লাড ব্যাংক, রাজাপুর’ নামক একটি সেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন।

খুলনা বরিশাল আঞ্চলিক মহাড়কের বাগড়ি বাজার এলাকার আলহাজ¦ লালমোন হামিদ মহিলা কলেজের মেইন গেটের সককের উত্তর-পূর্ব কর্ণার এলাকার একটি দেয়ালেই লেখা হয়েছে মানবিক আবেদনের এ কথাগুলো। ওই দেয়ালে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে ২০টিরও বেশি বিভিন্ন ধরনের পোশাক। রাজাপুরের সচ্ছল মানুষরা ওই দেয়ালে রেখে যাচ্ছেন তাদের অব্যবহৃত ও বাড়তি পোশাক। আর সেগুলো দুস্থ মানুষরা যার যেটা প্রয়োজন, সেটা নিয়ে যাচ্ছেন। এ কারণেই দেয়ালটির নামকরণ করা হয়েছে ‘মানবতার দেয়াল’।

সোমবার সকালে এর ওই সংগঠনের কয়েক যুবক মিলে আনুষ্ঠিানিকভাবে এর কার্যক্রম শুরু করা হয়। শুরুর পর ওই দেয়ালে উদ্যোগী ওই যুবকরা ছাড়াও স্থানীয় কয়েক ব্যক্তি তাদের অব্যবহৃত পোষাক রাখতে শুরু করেন। দুপুর পর্যন্ত প্রায় অর্ধশত পোষাক ওই দেখালের টাঙিয়ে রাখা হয়েছে। কয়েক অসহায় ব্যক্তি আবার ওখান থেকে তাদের পছন্দ ও চাহিদা অনুয়ায়ী পোষাক নিয়েছেন ব্যবহার করার জন। ওই রাস্তা থেকে যাতায়াতকারীদের সবার আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হল মানবতার দেয়াল। ওই পথ থেকে হাটতে গিয়ে চোখ আটকে যায় যে কারওই। রাজাপুর আলহাজ¦ লালমোন হামিদ মহিলা কলেজে একটি অনুষ্ঠান করতে এলে ওই সড়ক দিয়ে যাওয়ার সময় মানবতার দেয়ালে চোখ পড়ে জেলা তথ্য অফিসার রিয়াদুল ইসলাম।

তিনি বলেন, উদ্যোগটি অত্যন্ত চমৎকার। বর্তমান যুব সমাজ মাদক ও নানাভাবে অপকর্মে জড়িয়ে পড়ছে, তাদের মধ্যে থেকে একদল যুব সমাজের এমন উদ্যোগ সত্যিই প্রসংশনী। সকলের তাদেরকে সহয়োগীতা করা উচিত। জেলা তথ্য অফিসারের সাথে থাকা রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাব’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সাংবাদিক রহিম রেজা বলেন, সমাজে আজ মানবতার চরম বিপর্যয় চলছে। গানমাধ্যমে চোখ রাখলেই যুব সমাজের চরম অবক্ষয় ও সংকট নিয়ে সুশীলসামাজ হতাশ। এসব খবরের ভীড়ে এমন একটি উদ্যোগ সতিই আবাক ও আশার সঞ্চয় জাগায়। রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাবের পক্ষ থেকে এসব যুবকদের সকল প্রকার সহয়োগীতা করারও আশ^াস দেন এবং সচ্ছল মানুষের এমন মানবিক কাজের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান। স্থানীয় কয়েক ব্যক্তি স্থাপিত মানবতার দেয়ালের প্রশংসা করে মন্তব্য করেছেন, তরুন যুবকদের এ উদ্যোগ সত্যিই বিবেককে নাড়া দিবে সমাজের সকলকে।

এ উদ্যোগের প্রচার হলে উপকৃত হবে দুস্থ মানুষ গোষ্ঠী। উদ্যোক্তারা জানান, সমাজে অনেক শ্রেণির মানুষ রয়েছে, যাদের কাপড়চোপড় কেনার সামর্থ্য নেই। আবার তাদের ঘরে ওই পরিবারগুলোর পাশে দাঁড়াতেই মানবিক দেয়াল স্থাপনের উদ্যোগ নেয় তারা। ২০১৫ সালে যাত্রা শুরু হয় ‘সত্যের সন্ধানে ব্লাড ব্যাংক, রাজাপুর। বর্তমানে এ ক্লাবের সদস্য সংখ্যা ১৫০ জন। সেচ্ছায় রক্তদানসহ দুস্থ মানুষের কল্যানে কাজ করা এবং তাদের পাশে দাঁড়ানো, মাদক ও বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, ইভটিজিংসহ সামাজিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে করা হচ্ছে বলে জানান ওই সংগঠনের সভাপতি ঝালকাঠি সরকারি কলেজের ম্যানেজমেন্ট বিভাগে অনার্স চড়ান্ত বর্ষে পড়–য়া ফাহাদ আল রিয়াদ। তার সাথে মানবতার দেলালে কার্যক্রমের সাথে জড়িত রয়েছে মাহফুজুর রহমান, মোঃ রুবেল, নাঈম হোসেন, মোঃ হাদি, রাব্বি, জুয়েল হোসেন, আলিম মৃধা, বাবু, তানভীর আহম্মেদসহ কয়েক যুবক সার্বিক সহায়তা করে আসছেন। সকলের সহযোগী পেলে আরও জনকল্যান ও মানব কল্যান কর্মকান্ড করার ইচ্ছা রয়েছে তরুন উঠতি বয়সী এসব যুবকদের। ২০১৫ সালে ইরানের উত্তর-পূর্ব মাশাদ শহরে শীতার্ত মানুষের মধ্যে শীতবস্ত্র পৌঁছে দিতে এক ব্যক্তি প্রথম এমন উদ্যোগ নেন।


ঝালকাঠি এর অন্যান্য খবরসমূহ