মহেশখালীতে প্রকাশ্যে গোলাগুলি-পথচারীসহ অাহত-৯

মহেশখালী উপজেলার কুতুবজোম ইউনিয়নের বটতলা গ্রামে প্রকাশ্যে বন্দুক যুদ্ধের ঘটনা ঘটেছে। এতে পথচারীসহ ৯জন অাহত হয়েছে। গত ২৯ অাগস্ট সকাল ১১টায় জাহাঙ্গীর ও  হোসেন মেম্বারের মধ্যে গোলাগুলি হয় ।
কুতুবজোম বটতলী গ্রামের মোঃ জকরিয়ার পুত্র জাহাঙ্গীর অালমের দায়ের কৃত এজাহার সুত্রের দাবী প্রতিপক্ষ অাব্দু শুক্কুরের পুত্র  জাহাঙ্গীরের পরিবারের সাথে বিরোধ চলে অাসছিল। একারণে বাদী জাহাঙ্গীরের বাড়ীতে ঢুকে তার বোন বেবী অাকতারেক মারধর করে।
পরে তারা বেবীকে হাসপাতালে চিকিৎসা করার পর থানায় অভিযোগ করেন। অভিযোগ করার সংবাদ পেয়ে  হামিদ বকসুর পুত্র নুরুল অাবছার,ফোরকানের পুত্র জয়নাল,গুরাচানের পুত্র অাবু ববক্কর ,মান্নানের পুত্র অারমান,বদি
অালমের পুত্র দেলোয়ার,অাব্দুল মান্নানের স্ত্রী রুমা অাকতার মিলে বাদীর বাড়ীঘর ভাংচুর করে। এসময় বাধা দিতে গেলে ফারুক ও নিজাম গুলিবিদ্ধ হয়। পরে জাহাঙ্গীর গ্রুপের হামলায় মিশকাত,জিয়া উদ্দিন অাহত হয়।
এদিকে নিজাম,ওমর ফারুক,মিশকাতকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে চিকিৎসক।
দুই পক্ষের মধ্যে বৃষ্টির মত গুলি বর্ষণ হওয়ায় অপর পক্ষের আবুবক্কর সওদাগর, মাহামদুল করিম সওদাগর,জাহাঙ্গীর এবং সুরুজ জামানেরর পুত্র ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র অাকিব,নুরুল গুলিবিদ্ধ হয়েছে বলে এলাকাবাসি জানান। বর্তমানে গুলিবিদ্ধধ কয়েকজন সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এলাকাবাসীর দাবী দিন দুপুরে বাজারের গুলিবর্ষনের ঘটনায় নিরপক্ষ তদন্ত পূর্বক অস্ত্র উদ্ধারে পুলিশে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া দরকার।
এ ব্যাপারে মহেশখালী থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানান,গোলাগুলির সংবাদ পেয়ে দ্রুত পুলিশ পাঠানো হয়। অস্ত্র ব্যবহারে জড়িত কাউকে রেহায় দেওয়া হবে না। অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।