রায়পুর ফের লকডাউন

ঈদের কেনাকাটায় স্বাস্থবিধি না মানায় লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে দেওয়া হয়েছে ফের দেওয়া হয়েছে লকডাউন। করোনা প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধির আশঙ্কায় পুনরায় অনির্দিষ্টকালের জন্য রায়পুরকে লকডাউন ঘোষণা করেছে উপজেলা প্রশাসন। আজ মঙ্গলবার থেকে পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত ওষুধ, নিত্য প্রয়োজনীয় পন্যের দোকান ছাড়া বাকি সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে লকডাউনের আওতায়।


মঙ্গলবার সকালে রায়পুর উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মামুনুর রশিদ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
জানাগেছে, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী লকডাউন শেষে ১০ মে রায়পুর উপজেলা শহরের প্রত্যেকটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা হয়। এ সুযোগে ঈদেও কেনাকাটার জন্য রায়পুরের প্রত্যান্ত অঞ্চল থেকে শহরে এসে কেনা কাটায় স্বাস্থবিধি না মেনে ভীড় জমায়। সে সাথে গায়ে গা লাগিয়ে দোকানের ভেতর জটলা সৃষ্টি করে বেচাকেনায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন ক্রেতা-বিক্রেতারা। করোনা ঝুঁকি বেড়ে দেখা দেয় করোনা প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধির আশঙ্কা। এ অবস্থায় সচেতন মহল ও স্থানীয়রা সামাজিক যোগাযোগে ফের লকডাউনের দাবী উঠে আসে। এর প্রশাসনের পক্ষ দেওয়া হয় ফের লকডাউন।


রায়পুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এবিএম মারুফ বিন জাকারিয়া জানান,প্রথম দিকে রায়পুর করোনামুক্ত ছিল। গত সপ্তাহ থেকে উপজেলায় করোনা রোগী শনাক্ত হতে শুরু করে। এ পর্যন্ত চারজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী বাজার খুলে দেয়া হলেও স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না ক্রেতা-বিক্রেতারা।এজন্য সর্বনাশ হবে। পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত পুনরায় উপজেলাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।


এদিকে জেলা সদরে প্রশাসনিক তৎপরতা থাকলেও ক্রেতা-বিক্রেতারা পোশাকবিতানগুলোতে প্রবেশে স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। একই অবস্থা,রামগতি আলেকজান্ডার ও রামগঞ্জেও।তবে এ অবস্থায় ফের লকডাউনের একই দাবী করেছেন সচেতন মহল।