লক্ষ্মীপুরে জোয়ারের পানিতে প্লাবিত ৫৫ গ্রাম - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

লক্ষ্মীপুরে জোয়ারের পানিতে প্লাবিত ৫৫ গ্রাম



অনলাইন ডেস্ক, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর, রামগতি ও কমলনগরে মেঘনা নদীর অস্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে অন্তত ৫৫টি গ্রাম পানিতে তলিয়ে গেছে। বুধবার ( ১৯ আগস্ট) বিকাল থেকেই মেঘনার জোয়ারের পানি বাড়তে থাকে। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত নদীর পানি স্বাভাবিকের চেয়ে ৪ থেকে ৬ ফুট বেড়ে যায়। এতে কাঁচা ঘর-বাড়ি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পানি ঢুকে ক্ষতি হয়েছে ব্যাপক। পানির তোড়ে বিভিন্ন সড়ক ও কালভাট ভেঙে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। পানিবন্দি হয়েছে অন্তত ৫০ হাজার মানুষ। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সরকারি কোন কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিরা খোঁজ খবরতো নেয়নি।


স্থানীয়রা জানান, বিকালে মেঘনায় হঠাৎ জোয়ারের পানি অতিরিক্তভাবে বাড়তে থাকে। দুই ঘন্টার মধ্যে চরাঞ্চলসহ লোকালয়ে ঢুকে পড়ে পানি। বেড়িবাঁধ না থাকায় মেঘনা নদীর তীরবর্তী বালুরচর, সুজনগ্রাম, জনতা বাজার, মুন্সীরহাট, সেবাগ্রাম, চরআলগী, বড়খেরী, চরগাজী, চরগজারিয়া, চর মুজাম্মেল ও তেলিরচর এলাকা পানির নিচে তলিয়ে যায়। পানিতে প্লাবিত হয় মুন্সীরহাট বাংলাবাজার, জনতা বাজার ও চেয়ারম্যান বাজার।
এদিকে কমলনগরে চর কালকিনি, চর মার্টিন, চর লরেন্স, সাহেবেরহাট, ফলকন ও পাটারিরহাট ইউনিয়ন পানির নিচে ডুবে যায়। নাছিরগঞ্জ, মাতাব্বরহাট, বাঘারহাটসহ উপক‚লীয় হাট-বাজারগুলো পানিতে তলিয়ে আছে।


রায়পুর উপজেলার উত্তর চরবংশী, দক্ষিন চরবংশী, উত্তর চর আবাবিল ও দক্ষিন চর আবাবিল ইউনিয়নের ১৫ টি গ্রামের প্রায় ৫ হাজার পরিবার পানি বন্ধি রয়েছে।


সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শফিকুর রেদোয়ান আরমান শাকিল ও রায়পুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবরিন চৌধুরী মোবাইল ফোনে জানান, অতিরিক্ত জোয়ারের পানিতে বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। রাস্তা ঘাটও ভেঙ্গে গেছে আমরা গুরুত্বপূর্ণ স্থান বিবেচনায় দ্রুত মেরামতের চেষ্টা করছি। ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে জমা দেওয়া হয়েছে।


এ সম্পর্কিত আরো খবর

লক্ষীপুর এর অন্যান্য খবরসমূহ
লক্ষ্মীপুর এর অন্যান্য খবরসমূহ
পূর্বের সংবাদ