লাকসামে আজো মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতি পায়নি আবুল কাশেম

লাকসামে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাইয়ে তালিকাভূক্ত হলেও গেজেট প্রকাশিত না হওয়ায় মুজিবনগর সরকারের সাবেক কর্মচারী মোঃ আবুল কাশেম আজো মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পায়নি। লাকসাম পৌর এলাকার ডুরিয়া বিষঞপুর গ্রামের মৈধর আলীর ছেলে বয়োবৃদ্ধ মোঃ আবুল কাশেম। এদিকে গেজেট প্রকাশের জন্য তিনি মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রনালয়সহ সংশ্লিষ্টদের দপ্তরে আবেদন করেছেন।

 

জানা যায়, মুজিবনগর সরকারের সাবেক কর্মচারী মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম যুদ্ধ পরবর্তী সময়ে প্রাপ্ত তার সনদটি হারিয়ে ফেলেন। এদিকে তিনি বর্তমান সরকারের আমলে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই কালে আবেদন করেন। যাচাই বাছাই শেষে তার নাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের ৩নং সিরিয়ালে অর্ন্তভূক্ত হন। ২০১৭ সালে এ যাচাই বাছাই শেষ হলেও এখনো গেজেট প্রকাশিত না হওয়ায় তিনি সরকারি সকল রকম ভাতা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

 

ওই মুক্তিযোদ্ধা জানান, মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম ১৯৭১ সালে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ভারতে যান। সেখানে ট্রেনিং শেষে বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর অধ্যক্ষ আশরাফ উদ্দিন চৌধুরীর তত্বাবধানে থেকে ভারতের বড়মুড়া ইয়ুথ ক্যাম্প মুজিবনগর সরকারের স্টোর ইনচার্জ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

 

মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম আরো জানান, মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই তালিকা প্রকাশ না হওয়ায় আমি গেজেটভূক্ত হতে পারিনি। তাই একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে সকল সরকারি সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত। বর্তমানে তিনি স্ত্রী, তিন ছেলে, তিন মেয়ে নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।