লাকসাম সাংবাদিক ইউনিয়ন সভাপতিকে হত্যার হুমকি

লাকসাম সাংবাদিক ইউনিয়ন সভাপতি ও দৈনিক মানবজমিন প্রতিনিধি কামরুল ইসলামকে হত্যার হুমকি দেয় দুস্কৃতিকারীরা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে এ হত্যার হুমকি প্রদান করে। এ ব্যাপারে গতকাল সন্ধ্যায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা দায়ের করার পরও থানা পুলিশ আসামীদেরকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

মামলার বিবরণে জানা যায়, সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি দৈনিক মানবজমিন লাকসাম প্রতিনিধি কামরুল ইসলামকে একদল দুস্কৃতিকারীরা দৌলতগঞ্জ বাজারে কাপড়িয়া পট্টি খাতুন ম্যানসানের নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে তাকে খোঁজতে থাকে। ওইসময় মিন্টু, রাসেল, পিয়াস এর নেতৃত্বে ১০/১৫ জনের দুস্কৃতিকারীরা দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র ও পিস্তল নিয়ে  হত্যার হুমকি প্রদান করে এবং দোকানের ক্যাশ থেকে টাকা নিয়ে যায়। কি কারনে এ কথা জিজ্ঞাসা করলে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং ক্ষিপ্ত হয়ে ওই সাংবাদিকের গায়ে আঘাত করে ও কোন সংবাদ এখন থেকে  না লিখার জন্য হুমকি দেয়।

এ ব্যাপারে ওইদিন রাতে তিনি লাকসাম থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- ১১৪১, তারিখ- ১৩/১২/২০১৮। তাৎক্ষনিক ভাবে লাকসাম উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী মোঃ তাজুল ইসলাম এ ঘটনা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারের জন্য অনুরোধ জানান। লাকসাম ইসলাম আন্দোলন বাংলাদেশের সংসদ সদস্য পদ প্রার্থী সেলিম মাহমুদ ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মহব্বত আলী তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে লাকসাম সাংবাদিক ইউনিয়ন সভাপতি কে হুমকির ঘটনায় আসামীদের গ্রেপ্তার না করায় সাংবাদিক ইউনিয়নের সকল সদস্য তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

লাকসাম থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মনোজ কুমার দে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন মামলার দায়েরের পর থেকে অভিযুক্তদের কে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।