লাকসামে মায়ের সাথে অভিমানে মাদ্রসা ছাত্রীর আত্মহত্যা - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

লাকসামে মায়ের সাথে অভিমানে মাদ্রসা ছাত্রীর আত্মহত্যা



মোহাম্মদ আহসানা উল্লাহ, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

কুমিল্লার লাকসামে মায়ের সাথে অভিমান করে এক মাদ্রাসার ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। ওই ছাত্রীকে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় উদ্ধার করে স্বজনরা পৌর শহরে শান্তা হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।


ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শনিবার সন্ধায় উপজেলার আজগরা ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড ঘাটার নোয়াগাও গ্রামে। জোছনা আক্তার নামে ওই গ্রামের হতদ্ররিদ কলা বিক্রেতা হাছান আহম্মদের ২য় মেয়ে। সে দৌলতগঞ্জ গাজীমুড়া কামিল মাদ্রাসার ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী।


স্থানীয় সুত্রে জানা যায় শনিবার (১৫ আগস্ট) সন্ধ্যায় পাশের বাড়িতে টিভি দেখতে গেলে ওই ছাত্রীর মা শিপনি বেগম কণ্যা জোছনাকে বকাঝকা করে মাগরিবের নামাজ পড়তে যান। অনেকক্ষন তার সাড়া না পেয়ে তালাশ করতে গিয়ে দেখেন সিলিংয়ে সাথে ওড়না পেঁচিয়ে জোছনা ঝুলে আছে। পরে মায়ের আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন তার লাশ নামিয়ে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ওই ছাত্রীর মৃত্যুর সংবাদ এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে তাদের বাড়িতে লোকজন ভিড় জমায়।



খবর পেয়ে লাকসাম থানা পুলিশ ওই ছাত্রী লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপালে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করে। ময়না তদন্ত শেষে আজ রবিবার বিকেলে ওই ছাত্রীর মরদেহ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করলে স্বজনরা তার পারিবারিক কবস্থানে দাফন করেন।


পরিবারের লোকজনের বরাত দিয়ে লাকসাম থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ নিজাম উদ্দিন জানান, তার মানসিক সমস্যা ছিল। মাঝে মাঝে সে মা-বাবার কথা অমান্য করে বাড়ির বাইরে রাস্তায় চলে যেত। ওইদিন টিভি দেখতে গিয়ে দেরি হওয়ায় মায়ের বকুনি খেয়ে জেদের বসে সে আত্মহত্যা করতে পারে। তবে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।


এ ব্যাপারে নিহতের পিতা আবুল হাসান বাদী হয়ে থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করেছেন।


উপজেলা এর অন্যান্য খবরসমূহ
কুমিল্লা এর অন্যান্য খবরসমূহ
জেলা এর অন্যান্য খবরসমূহ
লাকসাম এর অন্যান্য খবরসমূহ
পূর্বের সংবাদ