ছাতকে গ্রামবাসির দুই পক্ষে মুখামুখি সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক আশংজনক ৩০ - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

ছাতকে গ্রামবাসির দুই পক্ষে মুখামুখি সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক আশংজনক ৩০



ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

ছাতকে পল্লীতে দুই পক্ষে মুখামুখি সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক আহত হয়েছেন।গত মঙ্গলবার দুপুর ২টা থেকে সংঘষ শুরু হয়ে বিকাল ৪ টায় পযন্ত একটানা  ২ ঘন্টা ব্যাপি দুই পক্ষে-পাল্টা-পাল্টি দেশী অস্ত্র নিয়ে উভয়ের মধ্যে মুখামুখি সংঘর্ষে শতাধিক লোকজন আহত হয়েছে। এদের আশংকাজনক ৩০জন সিলেটের ওসমানি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভতি করা হয়েছেন। গত মঙ্গলবার উপজেলার উত্তর খুরমা ইউপির এলঙ্গী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।


জানা যায়,গত মঙ্গলবার এলঙ্গী মডেল হাইস্কুলের নাইনগার্ট দুদু মিয়াকে বিদ্যালয়ে ডেকে এনে প্রধান শিক্ষকের সামনে  বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি হাজি ময়না মিয়ার  হাতে মারপিট করেন মঙ্গলবার সাড়ে ১১ টায় সময়। এ ঘটনার জের ধরে নাইটগার্ট দুদু ভাই কালু মিয়া তাকে মোবাইলের মাধ্যমে হত্যার হুমকি দেয়ার ঘটনায় নাইটগাট দুদু মিয়া ও ময়না মিয়া পক্ষের লোকজন দেশী অস্ত্র নিয়ে মুখামুখি ২ ঘন্টা ব্যাপি পাল্টা-পাল্টি উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে।এ সংঘর্ষের খবর পেয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বিল্লাল আহমদসহ এলাকার গন্যমান্য বক্তিবর্গের মধ্যস্ততায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসতে সক্ষম হয়েছেন। এ সংঘর্ষে উভয় পক্ষের মধ্যে প্রায় শতাধিক জন লোকজন আহত হয়েছেন।এ মধ্যে আশংকাজন ৩০ জনকে সিলেটের ওসমানি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভতি করা হয়।আশংকজনরা হচ্ছেন, দুদুমিয়া, শাহাবুদ্দীন, হেকিম,হাফিজ আইন উদ্দিন, মিজান, বিলাল, নজরুল,বাদশা,জয়নাল আবেদীন, দিলাল, হাসনাত,কালাশাহ,ফজল,কাইয়ুম,সাইদুর,মস্তফা,লিলু,বারিক,সদরুল আমিন,নুরুল আমিনসহ ৩০জনকে সিলেটের ওসমানি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বাকীদের ৭০ জনকে ছাতক ও কৈতক হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।


এব্যাপারে দুদু মিয়া জানান,তিনদিন আগে আমার কাছ থেকে জোর পুবক বিদ্যালয়ের চাবি ছিনিয়ে নেন সভাপতি ময়না মিয়া। গত মঙ্গলবার সাড়ে ১১টায় আমাকে ডেকে নিয়ে বিদ্যালয়ে ভিতরে আটকিয়ে প্রধান শিক্ষক সামনে  সরকারদলীয় ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে আমাকে মারপিট করে সভাপতি হাজি ময়না মিয়া। এঘটনার জের উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘষ বাধে।
এব্যাপারে আ’লীগ নেতা বিদ্যালয়ের সভাপতি হাজি ময়না মিয়া,তাকে আঘাত করা কথা স্বীকার করে বলেন তার ভাই কালু মিয়া মোবাইল মাধ্যমে হুমকি দিয়ে দেশী-অস্ত্র নিয়ে তার বাড়িতে হামলার চেষ্টা করায় প্রতিরোধ করতে গিয়ে সংঘষ উভয় পক্ষের মধ্যে বাধেঁ। এব্যাপারে এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন ওসি মোস্তফা কামাল।


সিলেট এর অন্যান্য খবরসমূহ