দিনাজপুরে পুলিশের গুলিতে শিবির নেতা মুজাহিদুল নিহত

দিনাজপুর, ৩ ডিসেম্বর (খবর তরঙ্গ ডটকম)- জামায়াতের ডাকা মঙ্গলবারের হরতাল সমর্থনে দিনাজপুরে মিছিল বের করলে পুলিশের গুলিতে মুজাহিদুল ইসলাম নামে এক শিবিরকর্মী নিহত হয়েছেন। সোমবার সন্ধ্যায় দিনাজপুরের রানীরবন্দরে হরতাল সমর্থনে মিছিল বের করলে পুলিশ তাতে বাধা দেয়। এ সময় পুলিশের সাথে জামায়াত-শিবির নেতা-কর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। একপর্যায়ে সংঘর্ষ শুরু হলে পুলিশের গুলিতে আহত হন মুজাহিদ। রংপুর মেডিকেল কলেজে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

মুজাহিদ জামায়াতের উপজেলা আমির আতাউর রহমানের ছেলে। তিনি গোলাম রহমান শাহ ফাজিল মাদরাসার ছাত্র। তিনি দাখিল পরীক্ষার্থী ছিলেন। তার সাংগঠনিক মান সাথী।

বর্তমানে ঘটনাস্থলে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-বিজিবি ও র্যাোব এবং অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, রানীরবন্দরে জামায়াত-শিবির মিছিল বের করে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। মুহূর্তেই রানীরবন্দর এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। এ সময় কয়েকটি দোকানে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ কমপক্ষে ৭০ রাউন্ড টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। বন্ধ হয়ে যায় দিনাজপুর-রংপুর সড়কে যানচলাচল। এ সময় আহত হয়েছে পুলিশসহ কমপক্ষে ২০ জন। পুলিশের গুলিতে গুলিবিদ্ধ হয়েছে আরো চারজন।

এদিকে, মুজাহিদের নিহতের খবর ছড়িয়ে পড়লে নেতা-কর্মীদের মধ্যে আরো উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে বর্তমানে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে বিজিবি ও র্যােব তলব করা হয়।

চিরিরবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারিকুল ইসলাম জানান, এখন পর্যন্ত প্রায় ৭০ রাউন্ড রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।