বীর মুক্তিযোদ্ধা নজির আহমেদ ভূঁইয়ার রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন সম্পন্ন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের (ঢাকসু) সাবেক সদস্য ও লাকসামে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম পতাকা উত্তোলক বীর মুক্তিযোদ্ধা নজির আহমেদ ভূঁইয়ার (৬৭) মরদেহ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হয়েছে। সোমবার সকাল নয়টায় লাকসাম রেলওয়ে ক্লাব মাঠে মরহুমের প্রথম জানাযা এবং এগারটায় কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের ভোলাইন উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে দ্বিতীয় জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। পরে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা প্রদান শেষে মরহুমের মরদেহ কলেজের পাশে কবরস্থানে দাফন করা হয়।

জানাযা অনুষ্ঠানের পূর্বে কুমিল্লা জেলা এবং বৃহত্তর লাকসামের মুক্তিযোদ্ধাগণ, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠণের নেতৃবৃন্দ পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে মরহুম নজির আহমেদ ভূঁইয়ার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

11DSC00232মুক্তিযোদ্ধা নজির আহমেদ ভূঁইয়া আগেরদিন রোববার দুপুর ২.১০ মিনিটের সময় লাকসাম রেলওয়ে জংশনস্থ ইঞ্জিনিয়ার কলোনীতে নিজ বাসায় ইন্তেকাল করেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ক্যান্সার রোগে ভূগছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে, এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

উল্লেখ্য; নজির আহমেদ ভূঁইয়া ষাটের দশকে ঢাকসু’র সদস্য ছিলেন। তিনি ১৯৭১ সালের ১৪মার্চ লাকসামে সর্বপ্রথম স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করেন। পরবর্তীতে তিনি জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হন। তিনি জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলেন।

শোক জ্ঞাপন
বীর মুক্তিযোদ্ধা নজির আহমেদ ভূঁইয়ার মৃত্যুতে গভীর শোক জ্ঞাপন করেছেন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) কেন্দ্রীয় সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাবেক নৌ-পরিবহন মন্ত্রী আ স ম আবদুর রব, স্থানীয় সাংসদ মো. তাজুল ইসলাম, বৃহত্তর লাকসাম, নাঙ্গলকোট, মনোহরগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ এবং কুমিল্লা জেলা-উপজেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠক।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।