মনোহরগঞ্জে দুর্ধর্ষ ডাকাতি, ৮ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট: ককটেল বিস্ফোরণে আহত ৯

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার খিলা ইউনিয়নের বাতাবাড়িয়ায় রোববার রাতে এক দুর্ধর্ষ ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। ২০/২২ জনের মুখোশ পরিহিত ডাকাত দল ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে পরিবারের সদস্যদের হাত-পা বেঁধে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকারসহ অন্ততঃ ৮ লাখ টাকার মালামাল লুটে নেয়।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রোববার দিবাগত রাত আড়াইটায় ২০/২২ জনের মুখোশ পরিহিত পিস্তল, দা-ছেনি, ডাকাতদল পশ্চিম বাতাবাড়িয়া গ্রামের আবুল হোসাইনের বাড়িতে হানা দেয়। এ সময় ডাকাতরা ঘরের দরজা ভেঙ্গে হানিফ মিয়া, তার স্ত্রী ফুলমতিন্নেছা, ছেলে জসিম, ইমরান ও মহিলাসহ পরিবারের ৮/৯ জনকে বেঁধে ফেলে। পরে ডাকাতরা ঘরের আসবাবপত্র তছনছসহ নগদ টাকা, ৮ ভরি স্বর্ণালংকার, মোবাইল সেটসহ অন্ততঃ ৮ লাখ টাকার মালামাল লুটে নেয়। পরে পাশের বাড়ির লোকজন টের পেয়ে চিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। এ সময় ডাকাতরা ককটেল বিস্ফোরণসহ, লোকজনকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ১৫ জনকে আহত করে। আহতদের মধ্যে খিলা বাতাবাড়িয়ার আবুল হোসাইন (৩৩), জালাল উদ্দিন (১৮), রিয়াজুল ইসলাম (১৯), শাহ আলম (১৬), সবুজ (২২), আবদুল কাইয়ুম (৬০), আলাউদ্দিন (২০), আবদুল করিম (৬০) ও আবদুস ছাত্তারকে (৪৫) লাকসাম সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এসআই আলী হোসেন দুয়ারীর নেতৃত্বে মনোহরগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
এ বিষয়ে মনোহরগঞ্জ থানার ওসি জহিরুল আনোয়ার জানান, ঘটনাস্থলে ফোর্স পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ছবির ক্যাপশন.
ডাকাতির ঘটনায় লাকসাম সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহতদের কয়েকজন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।