তদন্তে কমিটি, ভিসি অপসারণে রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে মানবপ্রাচীর

রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক আব্দুল জলিল মিয়ার অপসারণের দাবিতে রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে মানবপ্রাচীর কর্মসূচি পালন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। এদিকে, আন্দোলনরত শিক্ষকদের ওপর অ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তদন্ত কমিটির প্রধান করা হয়েছে অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক মোরশেদ হোসনকে।

কমিটির বাকিরা হলেন- আহবায়ক অর্থনীতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. মোরশেদ হোসেন, সদস্য ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা দপ্তরের পরিচালক ড. আবু মো. ইকবাল রুমী শাহ এবং সদস্য সচিব বহিরাঙ্গন কার্যক্রমের পরিচালক ড. মো. নাজমুল হক। কমিটিকে আগামী ১০ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। শনিবার জনসংযোগ দপ্তর থেকে দেয়া এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

গত বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণার পর তারা শনিবার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা এই মানবপ্রাচীর গড়ে তোলেন। ভিসি অপসারণে তাদের এই আন্দোলনে একাত্মতা প্রকাশ করে ১৯টি সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতারা।

বেলা ১২টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েক হাজার শিক্ষক-শিক্ষার্থী কর্মকর্তা-কর্মচারী নগরীরে প্রেসক্লাবের সামনে ভিসি ড. আব্দুল জলিল মিয়ার পদত্যাগের দাবিতে মানববন্ধন করে। মুহূর্তে মানববন্ধনটি দীর্ঘ এক কিলোমিটার এরিয়া জুড়ে যায়।

তিনটি লাইনের মানবপ্রাচীরে নগরীর প্রধান সড়কে তীব্র যানজট দেখা দেয়। এ সময় আন্দোলনকালীরা বলেন, ক্যাম্পাস বন্ধ করে ভিসি তার পদত্যাগ ঠেকাতে পারবেন না। তার অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত অন্দোলন চলবে।

কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন- দুর্নীতিবিরোধী মঞ্চের প্রধান ড. আর এম হাফিজুর রহমান, ড. আপেল মাহমুদ, ড. আশরাফুল হক, ওমর ফারুক, সানোয়ার সিরাজ, শিক্ষার্থীদের পক্ষে সাদিয়া কবির, জিনাত মমতাজ, নওরিন তাবাসছুম, রাকিবুল ইসলাম, নুর আলম, লিটন, আরিফুল ইসলাম, সামিয়ুল ওয়াকিল মুন প্রমুখ।

অপরদিকে, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভুত পরিস্থিতি এবং অনিয়ম-দুর্নীতির কবল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়কে রক্ষায় রংপুর গণতন্ত্রী পার্টি কার্যালয়ে শনিবার সকালে সংবাদ সম্মেলন করেছেন জাসদ, ওয়ার্কার্স পার্টি কমিউনিস্ট পার্টি ও বাসদ নেতারা।

তারা আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার ঘটনাকে দুঃখজনক উল্লেখ করে সকল অভিভাবকসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষকে ভিসিবিরোধী আন্দোলনে সামিল হওয়ার আহবান জানান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন, গণতন্ত্রী পার্টির সভাপতি আরশাদ হারুন, জাসদের সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত রাঙ্গা, বাসদের সমন্বয়ক আব্দুল কুদ্দুস প্রমুখ।

এছাড়া শনিবার বেলা ৩টায় নগরীর রাজা রামমোহন ক্লাব মিলনায়তনে সাধারণ শিক্ষকবৃন্দ নাম দিয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করা হয়েছে। তারা ওই সংবাদিক সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্বুদ্ধ পরিস্থি স্বাভাবিক করার আহবান জানিয়েছেন।

এ সময় বক্তব্য রাখেন- ড. মাসুম আহমেদ পাটোয়ারী। সাধারণ শিক্ষকদের ব্যানারে সাংবাদিক সম্মেলন করার কথা বলা হলেও সেখানে বক্তব্য রাখেন- ভিসির ভায়রা ও বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ড. গাজী মাজহারুল আনোয়ার, রসায়ন বিভাগের প্রধান তারিকুল ইসলাম, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক তারিউর রহমান প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।