বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের কড়া সমালোচনা করেছে:হিউম্যান রাইটস ওয়াচ

নিউ ইয়র্কভিত্তিক আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ (এইচআরডব্লিউ) তাদের বার্ষিক প্রতিবেদনে বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের কড়া সমালোচনা করেছে। ২০১২ সালে বাংলাদেশে মানবাধিকার পরিস্থিতি আরো খারাপের দিকে গেছে বলে মন্তব্য করেছে সংস্থাটি । ত্রুটিপূর্ণ বিচার, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিচারবহির্ভূত হত্যার দায়মুক্তি এবং বেসরকারি সংস্থা (এনজিও) ও অধিকারকর্মীদের ওপর কড়াকড়ি আরোপ করেছে বলে সংস্থাটি উল্লেখ করেছে। সংস্থাটির অনলাইনে “২০১৩ ওয়ার্লড রিপোর্ট”, বাংলাদেশ অংশের প্রতিবেদনে এ মন্তব্য করা হয়েছে।

শুক্রবার প্রকাশিত সংস্থাটির বার্ষিক প্রতিবেদনে বাংলাদেশ অধ্যায়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের বিচার প্রক্রিয়া নিয়েও। এতে বলা হয়েছে, সরকার রাজনৈতিক দল ও নাগরিক সমাজের কাজের সুযোগ সীমিত করায়, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে নির্যাতনের ঘটনাকে বিচারের আওতায় না আনায়, হত্যা ও গুমের ঘটনার তদন্ত না হওয়ায় এবং বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাগুলের (এনজিও) ওপর নজরদারি বাড়ানোর ফলে ২০১২ সালে বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি আরো খারাপের দিকে গেছে।

প্রতিবেদনের বাংলাদেশ অধ্যায়ে বলা হয়েছে, ক্রসফায়ারের নামে বাংলাদেশে এখনো বিচার বহির্ভূত হত্যা চলছে। বিরোধী দল ও অধিকার কর্মীদের ‘নিখোঁজ’ হওয়ার ঘটনাও ঘটছে। একজন শ্রমিক নেতাকে অপহরণের পর হত্যা করা হয়েছে এবং আরো অনেককে হুমকি দেয়া হয়েছে। নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধে বাংলাদেশে শক্তিশালী আইন থাকলেও তার বাস্তবায়ন না থাকায় ধর্ষণ, যৌন নিপীড়ন, যৌতুকের জন্য নির্যাতন, এসিড সন্ত্রাস, ফতোয়ার নামে ‘অবৈধ’ শাস্তির ঘটনা ঘটেই চলেছে বলে উল্লেখ করা হয় প্রতিবেদনে।

এইচআরডব্লিউর এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক ব্র্যাড অ্যাডামস এক বিবৃতিতে বলেন, “বিচার বহির্ভূত হত্যা বন্ধ করা, অধিকার কর্মীদের কাজের জন্য অধিকতর উদার পরিবেশ সৃষ্টি এবং বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে এ সরকার ক্ষমতায় এসেছিল। কিন্তু সরকার এখন আর সেই সব লক্ষ্য অর্জনের চেষ্টা করছে বলে মনে হয় না।”

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।