মেক্সিকোয় ‘পেমেক্স’ তেল ভবনে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, নিহত ৮০

মেক্সিকোর একটি সরকারি তেল কোম্পানির কেন্দ্রীয় সদরদপ্তরে ভয়াবহ বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৮০ জন নিহত হয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছে শতাধিক ব্যক্তি। দেশটির সরকারি সূত্রের উদ্বৃতি দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম ‘টাইম’ জানায়, বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে রাজধানী মেক্সিকো সিটির সরকারি শীর্ষ তেল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ‘পেমেক্স’ এর কেন্দ্রীয় সদরদপ্তরে এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

পেমেক্সের ৫৪ তলা বিশিষ্ট প্রশাসনিক ভবনটিতে এক হাজারের বেশি কর্মী কাজ করেন বলে জানা গেছে। পেমেক্স সূত্র জানিয়েছে, “ধ্বংস স্তুপের নিচে আটকে পড়াদের উদ্ধার করতে ডগ স্কোয়াড নিয়ে উদ্ধারকার্য পরিচালনা করছে স্থানীয় উদ্ধারকারী দল।

সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, নিহত ও নিখোঁজদের আত্মীয়রা ঘটনাস্থলে জড়ো হয়ে তাদের নিকটজনের খোঁজ নিচ্ছেন। নিখোঁজদের কয়েকজন আত্মীয় জানান, বারবার ফোন করা হলেও ওপার থেকে কোনো জবাব পাওয়া যাচ্ছে না।

ঘটনার একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, “হঠাৎ করে বিদ্যুৎ চলে যায়, তারপর মুহূর্তেই দেখতে পাই অফিস ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে।”

দেশটির প্রেসিডেন্ট এনরিক পেনা নেইটো এবং রাজধানীর মেয়র মিগুয়েল অ্যাঞ্জেল ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন। নিহতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে প্রেসিডেন্ট নেইটো বলেন, “আমি গভীরভাবে শোকাহত আমাদের সম্মানিত কর্মীদের মৃত্যুতে।”

মেয়র মিগুয়েল অ্যাঞ্জেল সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থলেই নিহত হয় ১৩ জন এবং হাসপাতালে নেওয়ার পর নিহতের সংখ্যা উগ্বেগজনক হারে বাড়তে থাকে।

তিনি বলেন, “আমরা এখন পর্যন্ত শতাধিক লোককে আহতাবস্থায় উদ্ধার করেছি। এবং ধ্বংসস্তুপের নিচে আটকে পড়াদের উদ্ধার করতে উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত রেখেছি।

এর আগে, এক টুইটার বার্তায় পেমেক্স কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল, ঐ কার্যালয়ে বিদ্যু‍ৎ সরবরাহে সমস্যা হচ্ছিল। তবে সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত বিস্ফোরণের ব্যাপারে কোনো ব্যাখ্যা দেয়নি সরকার পক্ষ। এ ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট নেইটো।

পেমেক্স সূত্রও বিস্ফোরণের সম্ভাব্য কারণ খতিয়ে দেখছে বলে নিশ্চিত করেছে।

উল্লেখ্য, গত সেপ্টেম্বেরেও উত্তর মেক্সিকোয় পেমেক্সের একটি গ্যাস উৎপাদন কেন্দ্রে বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৩০ জন নিহত হয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।