সোমবার সারা দেশে সকাল-সন্ধা হরতাল

সোমবার  সারা দেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে জামায়াতে ইসলামী। দলটির ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান রাতে এক বিবৃতিতে হরতাল কর্মসূচি ঘোষণা করেন। শুক্রবার কক্সবাজারে জামায়াতে ইসলামী ও ছাত্রশিবিরের মিছিলে পুলিশের গুলিতে ৪জন নিহত, ৩০জন গুলিবিদ্ধসহ দুই শতাধিক আহত  ও ১১২জনকে গ্রেফতার করার প্রতিবাদে এ হরতাল ঘোষণা করে জামায়াত। বিবৃতিতে জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল বলেন, ‘সরকার ফ্যাসিবাদ কায়েমের জন্য দেশে রণ উন্মাদনা সৃষ্টি করে জামায়াত ও ছাত্র শিবিরের সমাবেশ এবং মিছিলে বেপরোয়াভাবে গুলি বর্ষণ করে নেতা-কর্মীদের হত্যা ও আহত করছে। ’

‘সরকার অন্যায়ভাবে ক্ষমতায় আঁকড়ে থাকার জন্য জামায়াতে ইসলামী, ইসলামী ছাত্রশিবির ও ওলামায়ে কেরামসহ বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের উপর নির্বিচারে গুলী বর্ষণ করে পাখী শিকারের মত মানুষ হত্যা করছে’ অভিযোগ করেন মাওলানা রফিক।

তিনি বিবৃতিতে অভিযোগ করেন, ‘বিচারের নামে প্রহসন করে জামায়াতের নেতৃবৃন্দকে হত্যা করে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার উদ্দেশ্যে সরকার নির্বিচারে মানুষ হত্যা করছে।’

মাওলানা রফিক দাবি করেন, ‘এ সরকারের আমলে এ পর্যন্ত জামায়াত ও শিবিরের ২০ জন নেতাকর্মী শহীদ হয়েছেন। তাদের মধ্যে ১৩ জনই পুলিশের গুলিতে শহীদ হয়েছেন। গুলিবিদ্ধ হয়েছে প্রায় দেড় হাজার নেতাকর্মী। পুলিশ শিবিরের নেতাকর্মীদের গায়ে বন্দুকের নল ঠেকিয়ে গুলি করেছে এবং চট্টগ্রামে একজন কর্মীর দুই চোখ তুলে তাকে হত্যা করেছে।’

এ সরকার জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্রশিবিরের ৩৩ হাজার নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে। এভাবে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের মাধ্যমে সরকার বাংলাদেশ থেকে ইসলামের নাম-নিশানা মুছে ফেলতে চায়। কিন্তু এ দেশের জনগণ তাদের এ স্বপ্ন কখনো পূরণ হতে দেবে না।
বিবৃতিতে মাওলানা রফিক কক্সবাজারে নিহতদের শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।