সাভারে বাসে ধর্ষণ চেষ্টা, লাফিয়ে পড়ে গৃহবধুর মৃত্যু

রাজধানীর সাভারে চলন্ত বাসে ধর্ষণের চেষ্টাকালে জানালা দিয়ে লাফিয়ে পড়ে চাঁদনি নামে এক গৃহবধূ নিহত হয়েছেন। শুক্রবার রাতে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভার বাজার বাসস্ট্যান্ডের নিকটবর্তী শিমুলতলায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন গৃহবধূর স্বামী আবু বকর সিদ্দিক প্রমিও। এখন পর্যন্ত পুলিশ ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে সনাক্ত করতে পারেনি। নিহত চাঁদনির স্বামী আবু বকর জানান, ‘এক আত্মীয়ের সঙ্গে দেখা করতে শুক্রবার রাত ১১টার দিকে স্ত্রী চাঁদনিকে নিয়ে তিনি বের হয়েছিলেন।’ পেশায় গার্মেন্টস এক্সেসরিজ ব্যবসায়ী আবু বকর বলেন, ‘তাদের দেখে গ্রামীণ সেবা নামে একটি বাস গন্তব্যে পৌঁছে দেবে বলে তাদের গাড়িতে উঠায়। গন্তব্যের দিকে না গিয়ে বাসটি শিমুলতলায় গিয়ে ঢাকার দিকে ঘুরিয়ে ফেলে।’

তিনি বলেন, এ সময় তারা আপত্তি জানালে বাসে অবস্থান করা বেশ কয়েকজন পরিবহন শ্রমিক চাঁদনির উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। তাদের হাত থেকে নিজেকে রক্ষায় চাঁদনি বাসের জানালা দিয়ে লাফ দিলে পেছনের চাকার নিচে পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

এ সময় আবু বকর নিজেও বাস থেকে লাফ দেন। এতে তিনি গুরুতর আহত হলেও প্রাণে বেঁচে যান।

পরে নিহতের স্বজনরা খবর পেয়ে আবু বকর সিদ্দিককে চিকিৎসা দিয়ে সাভার মডেল থানায় নিয়ে যায়।

সাভার থানার ওসি আসাদুজ্জামান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ‘এ ঘটনায় জড়িতদের আটকে পুলিশের একাধিক দল কাজ করছে।’

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।