চকরিয়ায় সফল হরতাল, ১৪৪ প্রত্যাহার, ৩ মামলায় ৪ হাজার আসামী

জামায়াতের ডাকা ৪৮ ঘন্টা হরতালের ২য় দিনে জেলার চকরিয়ায় পিকেটাররা  হরতাল পালন করেছে। তবে এখানে জারি করা ১৪৪ ধারা রবিবার রাতে প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে বলে প্রশাসন জানায়।  হরতালের কারনে পৌর শহরের প্রায় মার্কেটের দোকানপাট বন্ধ। সরকারী-বেসরকারী অফিসের কার্যক্রম চলছে ঢিলেঢালাভাবে।
উপজেলার দুটি আদালত খোলা থাকলেও কার্যক্রম চলছেনা। দুরপাল্লার যানবাহনতো দুরের কথা আভ্যন্তরিন সড়ক সমুহে যানবাহন চলাচল নেই। জনমনে আতঙ্ক বিরাজ করছে।
বৃহস্পতিবার সংঘঠিত ঘটনায় বিএনপি-জামায়াতের এক হাজার ১৫০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে পুলিশ বাদি হয়ে থানায় পৃথক তিনটি মামলা দায়েরের পর শনিবার ১৭০ জনের নামসহ অজ্ঞাতনামা ৪ হাজার জনকে আসামী করে নতুন আরো একটি মামলা রুজু করা হয়েছে।
জানা গেছে, গত শুক্রবার জুমার নামাজের পর পৌর শহরে বিােভকালে পুলিশের সাথে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে উপজেলা প্রশাসন অনির্দিষ্টকালের জন্য শহরে ১৪৪ধারা জারি করেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো.জয়নাল আবদীন বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, শহরের পরিস্থিতি বর্তমানে শান্ত রয়েছে। ১৪৪ ধারা প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে।
এদিকে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কে গত ৪দিন ধরে অবরোধের কারনে জাতীয় ও আঞ্চলিক কোন সংবাদপত্র চকরিয়ায় পৌঁছাতে পারেনি।
চকরিয়া থানার ওসি রনজিত কুমার বড়–য়া জানান, শুক্রবার জুমার নামাজের পর পৌর শহরে অবরোধ ও পুলিশের হামলার ঘটনায় সাহারবিলের মামুনুর রশিদ মামুন, মাওলানা আফম ইকবাল, মাওলানা শিব্বির আহমদ ওসমানী, শওকত আলমসহ ১৭০ জনকে অভিযুক্ত করে অজ্ঞাতনামাসহ ৩/৪ হাজার জনকে আসামী করে ২মার্চ’১৩ইং থানায় নতুন করে আরো একটি মামলা রুজু করা হয়েছে। থানার উপপরির্দশক মনিরুজ্জামান বাদি হয়ে এ মামলাটি করেন।

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।