জেসমিনের জামিন আবেদন খারিজ

হলমার্ক গ্রুপের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) তানভির মাহমুদের স্ত্রী জেসমিন ইসলামের জামিন চেয়ে করা আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। সোমবার বিচারপতি এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী ও বিচারপতি মাহমুদুল হকের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। একই সঙ্গে এ বিষয়ে জারি করা রুলের পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ৩ মে দিন ধার্য করেছেন আদালত। আদালতে জেসমিন ইসলামের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। রিটের পক্ষে ছিলেন ড.ইউনুস আলী আকন্দ এবং দুদকের পক্ষে ছিলেন মো. খুরশীদ আলম খান। আইনজীবী ইউনুস আলী আকন্দ জানান, জেসমিন ইসলামের পক্ষে করা জামিন আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। পরবর্তী শুনানির জন্য ৩ মে দিন ধার্য করেছেন।

এর আগে গত ২০ ফেব্রুয়ারি হলমার্ক গ্রুপের সকল সম্পত্তির সব হিসাব আদালতে দাখিল করতে নির্দেশ দেন আদালত।
গত ৭ ফেব্রুয়ারি বিচারিক আদালত জেসমিন ইসলামের জামিন মঞ্জুর করার পর ১০ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ড. ইউনুস আলী আকন্দ হাইকোর্টে একটি আবেদন করেন।

ওই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি আদালত ঢাকা মহানগর জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ মো. জহুরুল হককে হাইকোর্টে তলব করেন।

এছাড়াও জেসমিন ইসলামের জামিন কেন বাতিল করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়। এবং ১৮ ফেব্রুয়ারি জহুরুল হককে হাইকোর্টে হাজির হতে নির্দেশ দেন।
হাইকোর্ট এ আদেশের পর গত রোববার জেসমিন ইসলামের জামিন বাতিল করেন জজ জহুরুল হক। এ বিষয়টি  আদালতে জানালে হাইকোর্ট তাকে ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহতি দেন।

জামিন বাতিলের পর মঙ্গলবার জেসমিন ইসলাম আদালতে আত্মসমর্পণের পর তাকে কারাগারে প্রেরণ করেন বিচারিক আদালত।

উল্লেখ্য গত বছরের ১৭ অক্টোবর মানিকগঞ্জ সার্কিট হাউজের পেছনের একটি বাসা থেকে তাকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

জেসমিন ইসলামের বিরুদ্ধে ১১টি মামলায় ১৫ কোটি ৬৪ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে।

এরপর তাকে ১১ মামলার মধ্যে রমনা থানার তিনটি মামলায় কয়েক দফায় ১৩ দিনের রিমান্ডে নেয় দুদক।

বহুল আলোচিত হলমার্ক গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) তানভীর মাহমুদ ও তার স্ত্রী চেয়ারম্যান জেসমিন ইসলামসহ মোট ২৭ জনকে আসামি করে গত বছরের ৪ অক্টোবর রূপসী বাংলা হোটেল শাখা থেকে হলর্মাক মোট দুই হাজার ৬৮৬ কোটি ১৪ লাখ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে ১১টি মামলা করে দুদক। আসামিদের মধ্যে হলমার্কের সাত জন এবং সোনালী ব্যাংকের ২০ জন কর্মকর্তা রয়েছেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।