কাদের মোল্লার রায়: রাষ্ট্র ও আসামী পক্ষের আপিল শুনানী ৩১ মার্চ

জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল কাদের মোল্লার যাবজ্জীবন সাজার রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের আপিল শুনানি হবে আগামী ৩১ মার্চ। প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনের নেতৃত্বে আপিল বিভাগ রবিবার শুনানির এই দিন নির্ধারণ করে দেন। রাষ্ট্রপক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এম কে রহমান ও সাবেক বিচারপতি সৈয়দ আমীরুল ইসলাম শুনানিতে অংশ নেন। অন্যদিকে কাদের মোল্লার পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক। পরে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এম কে রহমান সাংবাদিকদের বলেন, ট্রাইব্যুনালের রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্র ও আসামি- দুপক্ষই আপিল করেছে। ৩১ মার্চ থেকে একইসঙ্গে শুনানি হবে।

তিনি বলেন, শুনানির জন্য ২৪ মার্চের মধ্যে দুইপক্ষকে আপিলের সারসংক্ষেপ জমা দিতে বলেছে আপিল বিভাগ। রাষ্ট্রপক্ষ ইতোমধ্যে তা জমা দিয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ৫ ফেব্রুয়ারি মানবতাবিরোধী অপরাধের প্রত্যক্ষ সাক্ষীবিহীন মামলায় আবদুল কাদের মোল্লাকে দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২।

আদালত মোল্লাকে পাঁচটি অপরাধে দোষী সাব্যস্ত করে ১৫ বছর ও যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন এবং একটি অভিযোগ থেকে খালাস দেন।

এরপর এই রায়ের বিরুদ্ধে গত ৩ মার্চ সুপ্রিম কোর্টে আপিল করে রাষ্ট্রপক্ষ। অন্যদিকে অভিযোগ থেকে খালাসের আবেদন জানিয়ে পরদিন ৪ মার্চ আপিল করেন আবদুল কাদের মোল্লা।

আইন অনুযায়ী আপিল বিভাগে ৬০ দিনের মধ্যে আপিলের নিষ্পত্তি করতে হবে। আন্তর্জাতিক অপরাধ (ট্রাইব্যুনালস) আইনে আগে রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের আপিলের বিধান ছিল না। শুধু যে কোনো খালাসের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে পারত রাষ্ট্রপক্ষ।

আইনের এ অসামঞ্জস্যতা দূর করতে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি জাতীয় সংসদে পাস করা হয় ‘ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইমস (ট্রাইবুনালস) (অ্যামেন্ডমেন্ট) বিল-২০১৩’। এতে উভয় পক্ষেরই আপিলের সুযোগ তৈরি হয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।