ঝিনাইদহে মোচিক কর্মকর্তাসহ দুই জন নিহত

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ এবং কোটচাঁদপুর উপজেলায় ট্রাক চাপায় ও ট্রেনে কেটে মোচিক কর্মকর্তাসহ দুই ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন মোবারকগঞ্জ চিনিকলের (মোচিক) ইক্ষু উন্নয়ন সহকারী (সিডিএ) কালীগঞ্জ উপজেলার কমলাপুর গ্রামের বর্তমান নিমতলা এলাকার বাসিন্দা সরোয়ার খানের ছেলে শওকত আলী খান (৬০) ও অজ্ঞাত (৩৫) নামা এক মহিলা। নিহত মোচিক কর্মকর্তা এ বছরের ডিসেম্বরের দিকে অবসরে যাবেন বলে পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে। কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ লিয়াকত হোসেন জানান, বৃহষ্পতিবার সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে শওকত আলী খান মটরসাইকেল যোগে কোটচাঁদপুর সাবঅফিসে যাচ্ছিলেন। তিনি কালীগঞ্জ পৌরসভার কাশিপুর নামক স্থানে পৌছালে একটি ট্রাক তাকে পিছন দিকে থেকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নেবার পথে তিনি মারা যান। লাশ ময়না তদন্ত ছাড়ায় দাফনের জন্য পরিবারের সদস্যরা জেলা ম্যজিষ্ট্রেটের কাছে আবেদন করেছে। এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।
এদিকে ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর রেল ষ্টেশনে বৃহস্পতিবার দুপুরে ট্রেনে কাটা পড়ে অজ্ঞাত (৩৫) এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে। নিহত মহিলার কোন পরিচয় পাওয়া যায় নি। কোটচাঁদপুর রেল স্টেশনের মাস্টার আমিনুর রহমান জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টার দিকে রাজশাহী থেকে খুলনাগামী ৭৬২ সাগরদাঁড়ি ট্রেনটি ছাড়ার অপেক্ষায় ছিল। তিনি আরো জানান, ট্রেনটি ছেড়ে দেওয়া মুহুর্তে অজ্ঞাত মহিলাটি ট্রেনের নিচে ঝাপ দিলে তার শরীর থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। বৃহস্পতিবার দুপুর দুইটার দিকে যশোর থেকে জিআরপি পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ময়না তদন্তের জন্য লাশ নিয়ে গেছে।  বিষয়টি দুর্ঘটনা নয়, আত্মহত্যা বলে উল্লেখ করেন ষ্টেশন মাষ্টার। এদিকে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে কোটচাঁদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুব্রত কুমার শিকদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন বলেও ষ্টেশন মাষ্টার আমিনুর রহমান জানান। এ ব্যাপারে খুলনা জিআরপি থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।