নাঙ্গলকোটে ৫ গ্রামে দু’হাজার মানুষ পানিবন্দী

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে ডাকাতিয়া নদীতে বাঁধ দিয়ে চিনকি আস্তানা-লাকসাম ডাবল রেল সড়ক নির্মাণে গত কয়েক দিনের ভারি বর্ষণে সৃষ্ট জলাবন্ধতায় সহস্রাধিক লোক পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। এছাড়াও কয়েক’শ একর ফসলের মাঠ ও আউশের বীজতলা পানিতে তলিয়ে গেছে । সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার ঢালুয়া ইউপির চরজামুরাই গ্রামের পাশে ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলসড়কের ডাকাতিয়া নদীর উপর নির্মিত ব্রিজের নিচে রেলওয়ের চিনকি আস্তানা-লাকসাম ডাবল রেল সড়ক নির্মাণরত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান বাঁধ নির্মাণ করে কাজ করিতেছে। এতে গত কয়েক দিনের প্রবল বর্ষণে ওই এলাকার হুগলি, নলুয়াকান্দি, পুটিজোলাসহ ৫টি গ্রামের দু’হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়ে। প্লাবিত হয় ফসলের মাঠ। এছাড়াও নজির আহম্মদ নামের এক দরিদ্র কৃষকের বসতবাড়ি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যায়। ধারণা করা হচ্ছে এতে ওই কৃষকের আনুমানিক ক্ষতির পরিমান ৬ লক্ষাধিক টাকা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইদুল আরীফ ও স্থানীয় চেয়ারম্যান নাজমুল হাছান ভূঁইয়া বাছির ওই এলাকা পরিদর্শন করেন। এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান বাছির জানিয়েছে, প্রশাসনের সহযোগিতায় ক্ষতিগ্রস্তদের সহযোগিতার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এছাড়াও উপজেলার আদ্রা, জোড্ডা, সাতবাড়িয়া ও বক্সগঞ্জ ইউপির নিুাঞ্চল ভারি বর্ষনে প্লাবিত হয়ে ফসলের ক্ষতি ও সাধারণ মানুষের দূর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।