আইসিসি দুর্নীতি দমন বিভাগের কর্মকর্তাদের জেরার মুখে আশরাফুল

মোহাম্মদ আশরাফুল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) দুর্নীতি দমন বিভাগের কর্মকর্তাদের জেরার মুখে পড়েছেন । ম্যাচ গড়াপেটা ইস্যুতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বাংলাদেশ দলের টপ অর্ডার এ ব্যাটসম্যানকে।

বিমান বন্দরের কাছে হোটেল রিজেন্সিতে অবস্থান করছেন আইসিসির দুর্নীতি দমন বিভাগের কর্মকতারা। সেখানেই আশরাফুলের মোবাইল জমা আছে। আর বাংলাদেশ দলের এ ওপেনার গত দুই দিন ধরে সেই হোটেলে যাওয়া-আসা করছেন। আশরাফুলের ঘনিষ্ট সূত্র থেকে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। পরে বিসিবির ভারপ্রাপ্ত সিইও নিজাম উদ্দিন সুজনও এই গুঞ্জনের সত্যতা স্বীকার করেন।

ভারতের আইপিএল শুরু হবার পর থেকেই ক্রিকেটে জুয়া আর ম্যাচ পাতানোর ঘটনার ছাড়াছড়ি। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগও (বিপিএল) এর উর্ধ্বে নয়। বিপিএলের প্রথম আসরেই পাকিস্তান ও ভারতীয় জুয়াড়িদের মিরপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়। আইসিসির দুর্নীতি দমন বিভাগের ধারণা দ্বিতীয় আসরেও একই ঘটনা ঘটেছে। যখন প্রতিযোগিতাটির প্রথম পর্ব থেকে বাদ পড়তে যাওয়া চিটাগং কিংসের কাছে বাজেভাবে হারে শিরোপা প্রত্যাশী ঢাকা গ্লাডিয়েটর্স। যাতে চিটাগং পরের পর্বে উতরে যায়। আর সেই ম্যাচটিতেই দৃষ্টিকটু বোল্ড আউট হয়েছিলেন ঢাকা অধিনায়ক আশরাফুল।

সে কারণেই আশরাফুলকে জেরা করা হচ্ছে বলে জানা গেছে। বিষযটি সম্পর্কে নিজামউদ্দিন সুজনেক প্রশ্ন করা হলে তিনি  বলেন, ‘আমাদের এই বিষয়ে সরাসরি মুখ খোলা সম্ভব নয়। এমনকি কোনো বিবৃতি দেয়াও যাবে না। কারণ, এখনো বিষয়টি সম্পর্কে আইসিসি আমাদের আনুষ্ঠানিকভাবে কিছুই জানায়নি। বিষয়টি খুবই স্পর্শকাতর। আইসিসির অনুমোদন ছাড়া আমরা কিছু বলতে পারব না। আইসিসি সবুজ সংকেত দেয়ার পরই আমরা সিদ্ধান্ত নেই। আশরাফুলের বিষয়েও, বিসিবি আইসিসি থেকে জানার পরই কিছু বলতে পারবে।’

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।