টেকনাফে শাশুড়ীকে হত্যার অভিযোগ

কক্সবাজারের টেকনাফে পুত্রবধু কর্তৃক শাশুড়ীকে গলাচেপে হত্যা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মহেষখালিয়া পাড়া গ্রামে মৃত এরশাদুর রহমানের স্ত্রী রশিদা বেগম (৪৮)। ২২ মে রাত ১১টায় এ ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে পুত্রবধু ও শাশুড়ীর মধ্যে পারিবারিক কলহ চলে আসছিল। নিহতের পুত্র ছৈয়দ হোছন জানায়- রাত ৯টার দিকে মায়ের শরীরের অশান্তির কথা বললে ছেলে বাজার থেকে দুধ ও আমের জুস ক্রয় করে স্ত্রীকে মাকে খাওয়ার কথা বলে কাজের প্রয়োজনে চলে যায়। সে সুযোগে তখন পুত্রবধু  খুরশিদা গলাচেপে শাশুাড়ীকে হত্যা করে বাড়ির সামনের টয়লেটে ফেলে আসে। রাত ১২ টার নিহতের পুত্র পুত্র  ছৈয়দ হোছন বাড়িতে আসে। মা কোথায় জানতে চাইলে খুরশিদা জবাবে জানায় – টয়লেটে গেছে। ছেলে বাড়ির বাইরে  টয়লেটের সামনে এক বদনা পানিসহ মাকে মাটিতে শুয়া অবস্থায় দেখতে পায়। এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসী খুরশিদাকে আটকে রেখে পুলিশকে খবর দেয়। টেকনাফ মডেল থানা পুলিশের এসআই মোঃ ইয়াছিন ঘটনাস্থল থেকে নিহতের পুত্র বধু খুরশিদাকে আটক করে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করছে বলে জানিয়েছে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনর্চাজ মোঃ ফরহাদ।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।