রায়পুরে বিএনপি নেতার বিরুদ্ধে হত্যার চেষ্টায় অভিযোগে মামলা

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে বৃস্পতিবার (২৩ মে) রাত ১২ টা ১মিনিটে উপজেলা জিয়া পরিষদের সভাপতি জিয়াউল হক জিয়ার (৪০) বিরুদ্ধে নির্যাতন করে হত্যার চেষ্টার অভিযোগে থানা মামলা করেছেন ফিরোজ আলম নামের এক ব্যবসায়ী।  ওই আহত ব্যবসায়ী বর্তমানে রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে চিকিৎসাধিন রয়েছেন।
বুধবার (২২ মে) রাত ১০টায় বামনী ইউনিয়নের খায়েরহাট এলাকার চরবামনী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি পদে নির্বাচিত হতে না পারায় জিয়াউল হক ওই ব্যবসায়ীর ওপর এ কান্ড ঘটান।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ঢাকার ব্যবসায়ী ফিরোজ আলম জানান, বুধবার সকালে চরবামনী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির নির্বাচন হয়। সভাপতি পদে বামনী খান বাড়ির ইউপি সদস্য মোঃ মিরন, মোঃ জবি উল্যা, জিয়াউল হক জিয়া এবং পাশ্ববর্তী বামনী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক মাহবুবুর রহমান প্রার্থী হন। এতে সংশিষ্ট সকলের সম্মতিক্রমে মাহবুবুর রহমানকে সভাপতি পদে নির্বাচিত করেন। তার পে আমি কাজ করায় জিয়াউল হক জিয়া গত বুধবার রাত ১০টায় আমার বাড়ী থেকে ডেকে নির্জন স্থানে নিয়ে তার কয়েক বন্ধু মিলে আমাকে মারধার ও কামড়িয়ে অমানুষিক নির্যাতন চালিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা চালান। এসময় আমি চিৎকার দিয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলি। পরে জ্ঞান ফিরে এলে দেখি সরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছি।

যোগাযোগ করা হলে উপজেলা জিয়া পরিষদের সভাপতি ও হায়দরগঞ্জ তাহেরিয়া ফাজিল মাদ্রাসার কম্পিউটার শিক জিয়াউল হক জিয়া বলেন, তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে ফিরোজ আলমের সাথে আমার কথা কাটাকাটি হয়েছে। তার প্রত্য ও পরো বিরোধিতার কারনে আমি বিদ্যালয় পরিচালনার কমিটির সভাপতি হতে পারিনি বলে ফোনটি কেটে দেন।
রায়পুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কাশেম চোধুরী বলেন, বিএনপি নেতা জিয়াউল হক জিয়ার বিরুদ্ধে আহত ব্যবসায়ী ফিরোজ আলম বাদি হয়ে থানায় মারধর ও হত্যা চেষ্টার মামলা করেছেন। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।