বাংলাদেশিদের বিরল কৃতিত্ব নাসায়

নাসার চতুর্থ বার্ষিক লুনাবোটিক্স মাইনিং প্রতিযোগিতা-২০১৩ তে বিশ্বকে তাক লাগিয়ে শ্রেষ্ঠত্বের গৌরব অর্জন করে নিয়েছে বাংলাদেশের ‘এমআইএসটি লুনাবোটিক্স ক্লাব’ এবং বুয়েট লুনাবোটিকস টিম-২০১৩’। গত ২০ থেকে ২৪ মে আমেরিকার ফ্লোরিডায় কেনেডি স্পেস সেন্টারে চলে এই প্রতিযোগিতা। গতকাল স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় চূড়ান্ত বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরন করা হয়।পৃথিবীর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদেরকে বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, প্রকৌশল এবং গণিতে আরো বেশি করে যুক্ত রাখার জন্য নাসা বিশ্বব্যাপী এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে। বাংলাদেশে থেকে পাঁচটি বিশ্ববিদ্যালয় এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো- বুয়েট, চুয়েট, ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি, মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি এবং নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি। পাশাপাশি ব্র্যাক বিশ্বিবদ্যালয় ভার্চুয়াল হিসেবে অংশ নেয়।

এমআইএসটি টিমের একজন জানান, ‘প্রথম রাউন্ডে ১০ দশমিক ৪ কেজি lunar regolith সংগ্রহ করে বুয়েট এবং দ্বিতীয় রাউন্ডে ২২ দশমিক ৬ কেজি lunar regolith সংগ্রহ করে এমআইএসটি কোয়ালিফায়িং দল হিসেবে জায়গা করে নেয় প্রতিযোগিতায়। টানা একদিন করে সেরা দশ-এ জায়গা করে নেয় বুয়েট এবং এমআইএসটি।’ বিরল এই কৃতিত্বের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে তিনি আরো বলেন, ‘প্রতিযোগিতার শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে যা ঘটল তার জন্য আর যাই হোক, কমপক্ষে আমরা মানসিকভাবে প্রস্তুত ছিলাম না।’প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের ‘এমআইএসটি লুনাবোটিক্স একুশ’ টিম Outreachও Luna World wide award-এ প্রথম, System Engineering Paper-এ দ্বিতীয় এবং Team Spirit Award-এ তৃতীয় স্থান অর্জন করে।

এছাড়া বাংলাদেশের বুয়েট লুনাবোটিক্স টিম-২০১৩ Luna World Wide award-এ তৃতীয় স্থান অর্জন করে।

পুরস্কার গ্রহণের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে এক প্রতিযোগী বলেন, ‘বিপুল করতালির মাঝে পুরস্কার গ্রহণের সময় আমরা কেউই চোখের পানি ধরে রাখতে পারিনি।’

‘আমরা দেশের জন্য কতটুকু সাফল্য বয়ে আনতে পেরেছি জানি না, তবে আমাদের কারোই চেষ্টার কোনো কমতি ছিল না’ যোগ করেন তিনি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।