বিভিন্ন দাবিতে উত্তাল কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন দাবিতে ধারাবাহিক ভাবে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলছে। গতকাল বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ ও সাধারন শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে বিভিন্ন দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল করেন। ৬ষ্ঠ ও ৭ম ব্যাচের প্রাক-পরীক্ষা চালু, গ্রীস্মের ছুটি কমানো ইত্যাদি দাবিতে গতকাল বুধবার তারা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও ভিসি অফিসের সামনে বিক্ষোভ করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ ব্যাচ গত অক্টোবর থেকে প্রাক-পরীক্ষা চালুর দাবিতে আন্দোলন করে আসছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ৬ষ্ঠ ব্যাচ থেকে প্রাক-পরীক্ষা  বন্ধ করে দেয়। প্রাক-পরীক্ষা থেকে বঞ্চিত শিক্ষর্থীরা দাবি করেন এতে করে তাদেরকে প্রশাসন এই আধিকার থেকে বঞ্চিত করছে, যেটা বাংলাদেশের অন্য কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে নেই। তবে এ ক্ষেত্রে প্রশাসনের বক্তব্য হল, শিক্ষার্থীদের উপকারী বলেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী  ২জুন-২৯জুন বিশ্ববিদ্যালয় গ্রীস্মের ছুটিতে বন্ধ থাকবে কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা হরতাল ও রাজনৈতিক আস্থিতিশীলতার কারনে জটে আছেন বলে তারা এই ছুটি কমিয়ে আনতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে দাবি জানিয়ে আসছেন।

এদিকে গত ১৯মে থেকে ছাত্রলীগ এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে কারাগারে আটক ছাত্রকে নিয়ম বহির্ভুত ভাবে ইনকোর্সে নম্বর দেয়ার অভিযোগে শাস্তির দাবি জানিয়ে আন্দোলন করে আসছে। তবে অভিযুক্ত শিক্ষক লোক প্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মশিউর রহমান বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন ওটি ভুলক্রমে হয়েছিল যা পরবর্তিতে সংশোধন করা হয়েছে। উল্লেখ্য, গত ৪এপ্রিল কুমিল্লার পদুয়ার বাজার এলাকা সংলগ্ন রেল লাইনের ফিসপ্লেট খুলে ভয়াবহ রেল নাশকতার মামলায় সন্দেহভাজন আসামী হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক-প্রশাসন বিভাগের ৫ম ব্যাচের শিক্ষার্থী আতাউল্লাহ বোখরীকে আটক করা হয়। ঐ শিক্ষার্থী ইনকোর্সের কোন পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেন নাই, গতকাল পর্যন্ত তিনি কুমিল্লা কারাগরে আটক আছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. সৈয়দুর রহমান বলেন, শিক্ষার্থীদের সকল দাবির বিষয় বিবেচনা করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।