টেকনাফে ছুরিকাহতের ঘটনায় সন্ত্রাসী কর্তৃক বসতবাড়ি ভাংচুর

টেকনাফে ক্রিকেট খেলার হারজিতকে কেন্দ্র করে এক যুবক ছুরিকাহত ঘটনায় বাদী প সন্ত্রাসী দিয়ে বিবাদী পরে বসতবাড়িতে ভাংচুর তান্ডব চালায়। এতে সন্ত্রাসীদের আঘাতে মা-মেয়ে গুরতর আহত হয় । সূত্রে জানা গেছে -গত ১৮ মে বিকাল ৫টায় টেকনাফ পৌর এলাকার পুরান পলান পাড়া এলাকায় বাহারছড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শওকতের বাসার সামনে খেলার মাঠে ঘটে এ ঘটনা ।

এ ঘটনায় গত ১৯ মে ছালেহ আহমদ বাদী হয়ে আবু কায়েছকে প্রধান আসামী করে ৭ জনের বিরুদ্ধে টেকনাফ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। মামলার আসামীরা  হচ্ছে- জাফর আহমদের পুত্র আবু মুছা (২৪) , আবু তালেব(২৬), পিতা অঞ্জাত ইউনুস(৪৫), জাফর আহমদের স্ত্রী আম্বিয়া খাতুন (৪০), ইউনুসের স্ত্রী সেতারা বেগম (৩৩), সর্বসাং- পুরান পলান পাড়া। বিবাদী পরে আম্বিয়া খাতুন জানায়- ঘটনার দিন আবু মুছা চট্টগ্রামে অবস্থান করছে এবং অপর আবু তালেব প্রবাসী হিসাবে  মালয়েশিয়া বসবাস করছে। এতে ২ জনকে মিথ্যা মামলায় জড়ানো হয়েছে। এরা মূলত ঘটনাস্থলে ছিল না।

উলেখ্য, গত ১৮মে বিকাল ৫টায় টেকনাফ উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন পুরাতন পলান পাড়াস্থ খেলার মাঠে শামিম ও আয়াজ গংদের সাথে ক্রিকেট খেলা চলে এবং ক্রিকেট খেলার হারজিতকে কেন্দ্র করে উভয়ের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। এতে শামীম ও আয়াছ আমার পুত্র কায়েছের উপর ছুরি দিয়ে আক্রমণ করার চেষ্টাকালে উভয়ের মধ্যে হাতাহাতি হয়ে মারামারি হয়। হাত থেকে ছুরি কেড়ে নেওয়ার এক পর্যায়ে তা পেটে লাগে। এ ঘটনার বাদী পরে লোকজন আমার যানমালের উপর হামলা করে এবং অসহায় নিরীহ লোকজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে। তিনি এ ব্যাপারে সুস্থ বিচার চেয়ে প্রশাসনের হস্তপে কামনা করেছেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।