জমি নিয়ে বিরোধ: রায়পুরে কৃষকের বাড়িতে ভাঙচুর লুটপাট, আহত-৮

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা এক কৃষকের বসতবাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে আহত হয়েছেন নারীসহ ৮ জন। গত শনিবার (১ জুন) রাতে বামনী ইউনিয়নের সাইচা গ্রামের কৃষক হোসেনের বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এঘটনায় আদালতে মামলার প্রস্তুতি চলছে।
আহতদের মধ্যে কৃষক মো. হোসেন (৫০), তার স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (৩৫), জামাতা কাদের পাটোয়ারী (৪০) ও মো. শাকায়েত উল্ল্যাকে (৫২) রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যরা স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিয়েছেন।
হামলার শিকার চিকিৎসাধীন কৃষক হোসেন জানান, তার সাথে দীর্ঘদিন ধরে প্রভাবশালী প্রতিপক্ষ আয়াত উল্ল্যার ছেলে হানিফ গংদের ৪ শতাংশ জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে শনিবার সন্ধ্যা ৮ টার দিকে দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। পরে রাত ৯টার দিকে হানিফসহ ১০-১২ জন সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে।  সে সময় ঘরে থাকা প্রায় ২০ হাজার টাকার আসবাবপত্র লুটপাট করে নিয়ে যায়। এতে বাধা দেয়ায় কৃষক হোসেনসহ তার স্ত্রী, জামাতা ও ৮ জনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করে। এঘটনায় আমরা আদালতে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি।
অভিযুক্ত হানিফ ও তার লোকজন জানান, মো. হোসেনের সাথে আমাদের ৪ শতাংশ জমি নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এছাড়াও তার স্ত্রী মনোয়ারা এলাকাতে খারাপ মহিলা হিসেবে পরিচিত। এগুলো পরিহার করতে নিষেধ করলে তার পরিবার আমাদের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে গালাগালি করে। এর প্রতিবাদ করা হয়েছে।
বামনী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছালেহ আহম্মদ জানান, মনোয়ারা বেগম ও হানিফ মিয়া উভয়ই খারাপ ব্যক্তি। তাদের বিরুদ্ধে মাঝে মধ্যেই সালিশ দরবার করতে হয়। রাতের মারাপিটের ঘটনা এলাকাবাসী জানালে সাথে সাথে পুলিশকে জানানো হয়। তিনি জানান, দুই পরিবারের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া উচিত।
রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কাশেম চৌধুরী জানান, মারামারির ঘটনা শুনে পুলিশ পাঠিয়ে দুইপক্ষকে শান্ত থাকার কথা বলা হয়েছে। এঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থদের মামলা করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।