মহেশখালীতে গণধর্ষনের শিকার স্কুল ছাত্রী ॥ তোলপাড় ॥ থানায় মামলা

কক্সবাজার জেলার মহেশখালী উপজেলার জে.এম.ঘাট নিন্মমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৬ষ্ট শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ৫ নরপশু রাতভর পালাক্রমে গণ-ধর্ষণ করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় বিরাজ করছে ক্ষোভ,হতাশা ও মিছিল সমাবেশ।এ ঘটনার ৫ জনের বিরুদ্ধে মহেশখালী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

শাপলাপুর ইউনিয়নে ধুইল্যা ছড়ি গ্রামের বাসিন্দা জসিমের কন্যা ও জে.এম.ঘাট নি¤œ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৬ষ্ট শ্রেণীর ছাত্রী (নাম গোপন রাখা হল) কে কৌশলে সংঘবদ্ধ নরপশু গত ২৭ মে সন্ধায় অপহরণ করে নিয়ে যায়। ঐ রাতে স্থানীয় বার আউলিয়া মাজার সংলগ্ন মক্তব ঘরে নিয়ে পালাক্রমে অভিযুক্ত নরপশুরা পালাক্রমে ধর্ষণ করে মুমূর্ষ অবস্থায় পার্শ্ববর্তী পাহাড়ের পাদদেশে পেলে চলে যায়।

পরদিন ভোরে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসার শেষে জ্ঞান ফিরে আসলে তার কথা মত সাতঘর পাড়ার বশির উল্লার পুত্র আনছার উল্লাহ, জালাল আহমদের পুত্র মন্নান, জাফর আহমদের পুত্র মুহাম্মদ উল্লাহ, লেদু মিয়াজির পুত্র মাহাদুল উল্লাহ, এলাদু ফকিরের পুত্র মন্নানকে আসামী করে মহেশখালী থানায় ধর্ষনের মামলা দায়ের করা হয়েছে। মহেশখালী, কুতুবদিয়া, পেকুয়া ও চকরিয়া থানার দায়িত্বরত এ.এস.পি সার্কেল মুহাম্মদ খালেদ উজ-জামান গত ৪জুন ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করে বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসিকে শান্ত থাকার অনুরোধ জানান। তিনি অচিরেই অভিযুক্ত আসামীদের গ্রেফতারের আশ্বাস দেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।