শ্রেয়তর রান রেটে সেমিতে প্রোটিয়ারা

বৃষ্টির কারণে টাই দক্ষিণ আফ্রিকা – ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচ। তবে ডাকওয়ার্থ লুইস মেথডে রান রেটে এগিয়ে থাকায় ‘বি’ গ্রুপ থেকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালে উঠেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

১৯৯৯ আর ২০০৩ বিশ্বকাপে ম্যাচ টাই হওয়ায় বিদায় নিতে হয়েছিল প্রোটিয়াদের। এবার চ্যাম্পিয়ন্স  ট্রফিতে আরেকটি টাই দক্ষিণ আফ্রিকাকে তুলে দিল সেমিফাইনালে। কার্ডিফে কয়েক দফা বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে টাই করে নেট রানরেটে এগিয়ে থাকায় শেষ
চারে উঠল দক্ষিণ আফ্রিকা।

বৃষ্টির কারণে খেলা শেষবার বন্ধ হওয়ার আগে ঘটল মহানাটক। ৩১ ওভারে নেমে আসা ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার তোলা ২৩০ রানের জবাবে ব্যাট করছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২৬.১ ওভারে ম্যাকলরেনের বলে স্টেইনের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফিরলেন পোলার্ড। ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্কোর তখন ১৯০/৬। এই জায়গাতেই শেষ হয়ে গেল ওয়েস্ট ইন্ডিজের সেমিফাইনালে ওঠার আশা। ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে দুই দলের স্কোর হয়ে গেল সমান। ম্যচ হয়ে গেল টাই। আগেই সেমিফাইনালে উঠে যাওয়া ভারতের সঙ্গী হলো দক্ষিণ আফ্রিকা।

ইংলিশ আবহাওয়ার অনিশ্চয়তায় গতকাল কার্ডিফে সকাল থেকেই ছিল রোদ-বৃষ্টির লুকোচুরি। কালো মেঘ ফুঁড়ে রোদের আভা দেখে মাঠকর্মীরা কাভার সরাতে গেলেই নামে বৃষ্টি। কয়েক দফা এভাবে চলার পর বেলা সোয়া একটায় হলো টস, ম্যাচ তখন ৩৬ ওভারের।

খেলা শুরু হওয়ার মিনিট ১৫ আগে আবারও আকাশ ভেঙে নামে বৃষ্টি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ তখন ভীষণ শঙ্কায়। খেলা না হলে রানরেটে এগিয়ে থাকায় সেমিতে চলে যাবে দক্ষিণ আফ্রিকা। শেষ পর্যন্ত খেলা শুরু হয় বেলা আড়াইটায়, ম্যাচ নেমে আসে ৩১ ওভারে। স্যাঁতসেঁতে আবহাওয়াকে বৃদ্ধাংগুল দেখিয়ে প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানরা স্কোরবোর্ডে জমা করেন ৬ উইকেটে ২৩০ রান।

ক্যারিবিয়ানরা লক্ষ্যের দিকে এগাতে থাকলেও বৃষ্টির বাধা আর ভাগ্যদেবী দক্ষিন আফ্রিকার দিকে হেলে পড়ায় টি২০ বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে বিদায় নিতে হয় চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি থেকে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।