টেকনাফ উপকূলে ‘মালয়েশিয়াগামী’ নৌকাডুবি: ৫মৃতদেহ উদ্ধার,নিখোঁজ ৩

টেকনাফ উপকূলের বঙ্গোপসাগরে ‘মালয়েশিয়াগামী’ ৩০ যাত্রী নিয়ে নৌকাডুবির ঘটনায় পাঁচ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এখনো ৩ জন নিখোঁজ রয়েছেন। অন্য ২২ যাত্রী সাঁতরে উপকূলে উঠে আসতে পেরেছেন। সূত্র মতে, ওই সময় সাঁতার কেটে অনেকেই কূলে ফিরে আসতে পারলেও নৌকার কর্মচারিসহ ৮ জন নিখোঁজ ছিলেন। ঘটনার পর থেকেই কোস্টগার্ড ও স্থানীয় পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

রবিবার ভোরে সমুদ্রপথে অবৈধ উপায়ে মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য সাগরে অপেক্ষমান বড় ট্রলারে তুলে দিতে গিয়ে ৩০ জন যাত্রীসহ ইঞ্জিনচালিত ওই নৌকাটি ডুবে যায়।

রবিবার বিকেলে ও রাতে সাবরাং ইউনিয়নের মুন্ডার ডেইল ও টেকনাফের মহেশখালিয়া পাড়া ঘাটে দুই মহিলা ও এক মেয়ে শিশুর মৃতদেহ ভেসে আসে।

সোমবার সকালে এক শিশুর মৃতদেহ পাওয়া যায়। যাত্রীদের অধিকাংশই মিয়ানমারের নাগরিক হওয়ায় পরিচয় পাওয়া দু:সাধ্য হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

উদ্ধার হওয়া মৃতদেহ গুলোর মধ্যে একজনের পরিচয় মিলেছে। ইনি হলেন নৌকার কর্মচারি টেকনাফের সাবরাং কাটাবনিয়া এলাকার মরহুম খুইল্যা মিয়ার ছেলে আবদুর রহমান।

স্থানীয় লোকজনের বরাত দিয়ে টেকনফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ফরহাদ জানান, সোমবার ভোরে সাবরাং ইউনিয়নের কাটাবনিয়া খালের মুখে একটি মৃতদেহ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা তা নৌকার কর্মচারি আবদুর রহমানের বলে সনাক্ত করেন। এছাড়াও সকালে আরও এক ছেলে শিশুর মৃতদেহ পাওয়া যায়।

টেকনাফ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবদুল আউয়াল সাংবাদিকদের জানান, সোমবার সকালে তিনি দুইটি মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে নিয়ে এসেছেন।

উল্লেখ্য, রবিবার ভোরে টেকনাফ উপকূলে ডুবে যাওয়া নৌকায় ৩ জন মাঝি-মাল্লা ও যাত্রীদের মধ্যে পুরুষ, নারী ও শিশু মিলে ২৭ জন যাত্রী ছিলেন।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ফরহাদ সাংবাদিকদের জানান, সোমবার সকাল পর্যন্ত ৫টি মৃতদেহের সন্ধান পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সাবরাং ইউনিয়নের কচুবনিয়া এলাকার আজম উল্লাহ ও মনিরকে পলাতক দেখিয়ে আটককৃত ৩ জনের বিরুদ্ধে মানব পাচার আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ওই ঘটনার পর রবিবার বিকালেই কোস্টগার্ড সাবরাং ইউনিয়নের কচুবনিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুইজন দালালকে আটক করে।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।