রায়পুরে বিদ্যুৎ অফিসে হামলা, কর্মকর্তার বাসা ভাংচুর

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে মঙ্গলবার (১৮ জুন) রাত ১১টায় বিদ্যুতের দাবিতে বিদ্যুৎ অফিস ও কর্মকর্তার বাসায় ভাংচুর করেছে বিক্ষুদ্ধ গ্রাহকরা। পরে বাস টার্মিনাল এলাকায় প্রধান সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করে। পরে বিভিন্ন স্থানে খন্ড খন্ড বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।
জানা যায়, লোডশেডিংয়ে অতিষ্ট হয়ে ৬০-৭০ জনের একদল বিক্ষুদ্ধ বিদ্যুৎ গ্রাহক রায়পুর নতুন বাজারস্থ পল্লী বিদ্যুৎ অফিস হামলা চালায় এবং টিএসসি সড়কস্থ বিদ্যুতের ডিজিএমের বাসভবনে হামলা চালিয়ে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে ব্যাপক ভাংচুর করে। রায়পুর বাস টার্মিনালে এসে টায়ার জ্বালিয়ে প্রায় ঘন্টাব্যাপী রায়পুর-লক্ষ্মীপুর সড়ক অবরোধ করে রাখে।
বিক্ষুদ্ধ বিদ্যুৎ গ্রাহকরা জানান, গত কয়েকমাস ধরে ২৪ ঘন্টার মধ্যে ১৮ ঘন্টা বিদ্যুতের লোডশেডিং করা হয়। বাকি সময় বিদ্যুৎ থাকলেও লো-ভোল্টেজ থাকে। প্রায় সময় ২-৪ সেকেন্ড সময় নিয়ে হাই-ভোল্টেজ-লো-ভোল্টেজে বিদ্যুৎ আসা-যাওয়ার কারণে বহু গ্রাহকদের ফ্রিজ, টেলিভিশন, কম্পিউটার অকেজ হয়ে গেছে। লোডশেডিংয়ের কারণে পৌরসভার পাম্প চালিয়ে পানি উত্তোলন ব্যাহত হওয়ায় পৌরবাসীদেরকে পানির চরম সংকটে পড়তে হয়েছে। বিদ্যুৎ নির্ভর  স্থানীয় প্রায় ১’শ কারখানায় উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। অসহনীয় গরমে জনজীবন অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। এতে বিদ্যুৎ গ্রাহকরা বিক্ষুদ্ধ হয়ে গত ৬ মাসে কয়েক দফা সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছিল। পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক করার আশ্বাস দিলেও অদ্যবধি লোডশেডিং কমানো হয়নি। এতে করে বিক্ষুদ্ধ বিদ্যুৎ গ্রাহকরা ফুঁসে ওঠেছে।
পল¬ী বিদ্যুতের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) জাকির হোসেন বলেন, বিদ্যুৎ অফিস ও আমার বাসায় হামলার বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসনসহ পল্লী বিদ্যুতের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।
রায়পুর থানার উপ-পরিদর্শক শামছুল হক বলেন, বিক্ষুদ্ধ গ্রাহকরা পুনরায় যাতে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাতে না পারে সেজন্য পুলিশ সতর্ক রয়েছে।
প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুতের দাবিতে বিক্ষুদ্ধ গ্রাহকরা ইউএনও কার্যালয় ঘেরাও করে ডিজিএমকে অবরুদ্ধ এবং তিন ঘন্টাব্যাপী সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ মিছিল করে। এ ঘটনায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকল পেশাজীবী প্রতিনিধিদের নিয়ে ইউএনওর কার্যালয়ে বৈঠকে সিদ্ধান্ত দিলেও তা বাস্তবায়ন হয়না।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।