স্কুল ছাত্রীকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় ফেনীর বালিগাঁওতে যুবলীগের দু’গ্র“পে সংঘর্ষ

ফেনী সদর উপজেলার বালিগাঁও হাই স্কুলের দশম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় মঙ্গলবার যুবলীগের দু’গ্র“পে সংঘর্ষে বোমা ও গুলির শব্দে এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনলেও কাউকে গ্রেফতার করেনি।
স্থানীয় সূত্র জানায়, রবিবার স্কুল ক্যাম্পাসে যুবলীগ কর্মী মামুন দশম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে লাঞ্ছিত করে। সে স্কুল কমিটির সভাপতি ও জেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহবায়ক শুসেন চন্দ্র শীলের সমর্থক। ঘটনাটি জানাজানি হলে স্কুলের শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর মাঝে ক্ষোভ ও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এনিয়ে সোমবার শালিস বৈঠকে মামুনকে দোষী সাব্যস্ত করে কান ধরে উঠবস করার সিদ্ধান্ত দিলে তার সহযোগিরা ক্ষুদ্ধ হয়ে শালিসদার ও অন্যদের গালিগালাজ করে হুমকি-ধমকি দেয়। এসময় সদর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক করিম উল্লাহ আজাদের চাচাতো ভাই মিষ্টার, উজ্জ্বল, বাবু, লিটনসহ কয়েকজন যুবলীগ কর্মী এর প্রতিবাদ জানালে উভয়পক্ষের বাকবিতন্ডা হয়। মঙ্গলবার সকালে মিষ্টার বাজারে আসলে পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা মামুন ও তার সহযোগিরা ধাওয়া করে। একপর্যায়ে মিষ্টার তার সহযোগিদের নিয়ে পাল্টা হামলা চালায়। এসময় উভয়পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় কয়েক রাউন্ড গুলি ও বোমার বিষ্ফোরণ ঘটে। খবর পেয়ে প্রায় ২ ঘন্টা পর পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলেও কাউকে আটক করেনি। এ ঘটনায় পুরো এলাকায় আতংক বিরাজ করছে।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।