চকরিয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান আড়াই শতাধিক ভাসমান দোকান উচ্ছেদ

চকরিয়া পৌর শহরের চিরিঙ্গায় অভিযান চালিয়ে উচ্ছেদ করা হয়েছে আড়াই শতাধিক ভাসমান দোকানঘর। এতে অবৈধ দখলমুক্ত হলো চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের দু’পাশের ওয়ানওয়ে সড়ক। গতকাল ২৩জুন রোববার সকাল ১০টায় ভ্রাম্যমাণ আদালত এ অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে নেতৃত্ব দেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়নাল আবদিন। এসময় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ আল আমিন, চকরিয়া থানার ওসি রণজিত কুমার বড়–য়া, ওসি (তদন্ত) মোঃ নাসির উদ্দীন, অপারেশন অফিসার মোঃ ওসমান গণি, দৈনিক পূর্বকোনের নিজস্ব সংবাদদাতা এম. জাহেদ চৌধুরী, চকরিয়া নিউজ ডটকমের সম্পাদক জহিরুল হক, দৈনিক কক্সবাজার বাণীর চকরিয়া প্রতিনিধি এম. রায়হান চৌধুরী, দৈনিক সংগ্রামের চকরিয়া সংবাদাতা শাহজালাল শাহেদ, দৈনিক ইনানী’র স্টাফ রিপোর্টার এম. জিয়াবুল হক, হিমছড়ি প্রতিনিধি আবদুল মজিদ, থানা পুলিশের এস.আই সিদ্দিক, সুরেজীত বড়–য়া, রুহুল আমিন, নাছির উদ্দিন, কল্লোল বড়–য়া ও সুশীল সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। অভিযানে ভ্রাম্যমাণ আদালত বেশ’কটি দোকান ঘরের মালিককে সড়ক দখল করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের দায়ে জরিমানা করেন। এদিকে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনার পর পথচারীরা কিছুটা স্বস্থিবোধ করে। কিন্তু পরক্ষণে ফের ভাসমান ব্যবসায়ীরা দোকানঘর নির্মাণ করে দু’পাশের ওয়ানওয়ে সড়ক দখল করতে দেখা গেছে। সচেতন মহলের দাবি, ক’দিন পর আবারো অভিযান পরিচালনা করা হলে পৌরবাসী নাগরিক সুবিধাদি ভোগ করতে পারবে। সেই সাথে যানজট নিরসণে অভিযানটি যুগান্তকারী ভূমিকা রাখবে।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।