কুমিল্লায় নববধুর আত্মহত্যা

কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলায় প্রেমের বিয়ে অস্বীকার করায় স্বামীর উপর অভিমান করে গলায় ফাঁস দিয়ে শাহিনুর আক্তার (১৬) নামে এক নববধূ আত্মহত্যা করেছে। সোমবার রাতে উপজেলার বাংগুরী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মৃত শাহিনুর আক্তার উপজেলার বাংগুরী গ্রামের মৃতঃ আবদুল বারেকের মেয়ে। মঙ্গলবার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, বাংগুরী গ্রামের আবদুল খালেকের ছেলে মো. জসিম উদ্দিনের সঙ্গে তার চাচাতো বোন শাহিনুর আক্তারের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। গত ২১ জুন তারা দুইজন পালিয়ে গিয়ে বিয়ের প্রস্তুতি নেয়। এ খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন তাদের সামাজিকভাবে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে ফিরিয়ে আনেন। পরে ছেলে প এক লাখ টাকা ও গলায় স্বর্ণের চেইন যৌতুক হিসেবে দাবি করলে মেয়ের প থেকে ৬০ হাজার টাকা ও চেইন দেওয়ার শর্তে গত রোববার পারিবারিক আনুষ্ঠানিকতায় তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

জানা যায়, যৌতুকের ৬০ হাজার টাকা থেকে ছেলে পকে নগদ ১০ হাজার টাকা ও কাবিননামা রেজিস্ট্রি করার পূর্বে বাকী টাকা দেওয়ার শর্ত ছিল। পরে যৌতুক নিয়ে বনিবনা না হওয়ায় বর জসিম উদ্দিনের দু’বোন ও ভাবী জসিম উদ্দিনকে বিয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে যেতে সহায়তা করে।

এদিকে জসীম উদ্দিন বাড়ি থেকে বের হয়ে সোমবার সন্ধ্যায় মোবাইল ফোনে শাহিনুরকে বিয়ের কথা অস্বীকার করে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটির জের ধরে রাগে-ক্ষোভে গভীর রাতে শাহিনুর নিজ বাড়ির পশ্চিম পাশের পুকুর পাড়ে গাব গাছের ডালে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

এছাড়া দেবীদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম বদিউজ্জামান বলেন, তাদের পারিবারিকভাবে বিয়ে সম্পন্ন হলেও বিয়ে রেজিস্ট্রি হয়নি। এ ঘটনায় নিহতের পরিবার এখনো মামলা দায়ের করেনি। তবে অপমৃত্যু মামলা দায়ের করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।