টেকনাফে ভয়াবহ জলোচ্ছ্বাসে ভুমি ধ্বস

টেকনাফে ভয়াবহ জলোচ্ছাসে ব্যাপক ভুমি ধ্বসের ঘটনা ঘটেছে। এতে সমুদ্র সৈকত এলাকার হাজার হাজার ফলজ গাছ পানির ঢেউয়ের তোড়ে বিলীন হয়ে যাওয়ায় স্থানীয় লোকজন  ও প্রতিষ্ঠানের মালিকরা চরম আতংকে ভুগছে।

গতকাল ২৫ জুন ভোররাতে পূর্নিমার জোয়ারের অতিরিক্ত পানিতে সমুদ্র সৈকত এলাকার হাজারো ফলজসহ বিভিন্ন প্রকারের গাছের বাগান সমুদ্রের পানির তোড়ে ভুমি ধ্বসে সবকিছু বিলীন হয়ে গেছে। টেকনাফ সমুদ্র সৈকত এলাকায় স্মরনকালের সমুদ্রের পানিতে ভুমি ধ্বস হয়েছে বলে জানিয়েছে এলাকাবাসী। জোয়ারের পানি ৭ থেকে ৮ ফুট বৃদ্ধি পেয়ে সমুদ্র তীরবর্তী স্থানীয়দের তৈরি করা দীর্ঘদিনের সাজানো বাগান বিনষ্ট হয়ে গেছে। এতে সমুদ্র সৈকত এলাকার চরম ঝুঁকির মুখে পড়েছে কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হ্যাচারীগুলো। ভাঙ্গনে প্রায় ১২/১৫ টি বাগান সাগরে বিলীন হয়ে গিয়েছে। জলোচ্ছ্বাসে টেকনাফের মোঃ ওমর, আব্বাস উদ্দিন, কাইছার হামিদ সহ অনেকের বাগান বিধ্বস্থ হয়েছে।

এব্যাপারে সাবরাং ইউপি মেম্বার মোঃ ইউনুছ জানান, গতরাতে সমুদ্রের পানি অতিরিক্ত বেড়ে গিয়ে এত অল্প সময়ের মধ্যে এধরণের ভয়াবহ জলোচ্ছ্বাসে বাগানসহ বিভিন্নস্থান পানির তোড়ে ভুমি ধ্বসে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। যা কক্সবাজারের দক্ষিণাঞ্চলে এধরনের প্রাকৃতিক দূর্যোগ প্রথম হয়েছে।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।