শাহবাগ আন্দোলনের ‘বিদ্রোহী’ অংশ আন্দোলন জমাতে পারলেন না

একাংশের বিরুদ্ধে সরকারের সঙ্গে লিয়াঁজোর অভিযোগ এনে শাহবাগ আন্দোলনের সরকার সমর্থক অপর অংশ যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দ্রুত করার দাবিতে সমাবেশের ডাক দিয়ে তা জমাতে পারেননি।  নতুন করে আন্দোলন সৃষ্টির লক্ষ্যে নিজেদের ‘বিচ্ছু বাহিনী’ নাম দিয়ে শুক্রবার শাহবাগে মানববন্ধন ও সমাবেশের ডাক দেয় বিদ্রোহী অংশ।

বিকাল ৩টায় পূর্বঘোষিত মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও তখন তেমন কাউকেই সেখানে দেখা যায়নি। পরে বিকেল ৪টার পর কর্মসূচি পালিত হলেও এতে উপস্থিতি ছিল খুবই কম।

অবশ্য উপস্থিতি যা-ই হোক এই কর্মসূচির মধ্যদিয়ে যুদ্ধাপরাধের ফাঁসির দাবিতে এই প্রথম দ্বিধাবিভক্ত কোনো কর্মসূচি পালিত হলো। এর মধ্যদিয়ে গণজাগরণ মঞ্চের মধ্যে বিভক্তি আরো স্পষ্ট হলো।

আজকের কর্মসূচিকে ঘিরে দু’পক্ষের সংঘর্ষের আশঙ্কা থাকলেও শেষ পর্যন্ত তা হয়নি। মোটামুটি শান্তিপূর্ণভাবে ‘বিদ্রোহী’ অংশ তাদের কর্মসূচি পালন করেছে।

এই কর্মসূচিতে অংশ নেয়া গ্রুপ ও সংগঠনগুলো সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ডা. ইমরান এইচ সরকারের নেতৃত্ব আর মানতে চাইছে না। তাদের অভিযোগ, ইমরান ও গণজাগরণ মঞ্চের মূল নেতারা সরকারের স্বার্থ রক্ষার্থেই কাজ করে যাচ্ছে।

অপরদিকে, ‘বিচ্ছু বাহিনী’কে প্রতিরোধের ডাক দিয়েছে ডা. ইমরান এইচ সরকারের অনুসারিরা। ইমরানের অন্যতম ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত ব্লগার অমি রহমান পিয়াল তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে রীতিমতো হুমকি দিয়েছেন বিভক্ত অংশকে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।