কক্সবাজারে পাহাড় ধসে শিশু নিহত

কক্সবাজারে পাহাড় ধসে এক শিশু নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন আরো দুই মহিলা। শনিবার ভোরে কক্সবাজার শহরতলির সৈকত পাড়ায় পাহাড় ধসের এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভোর ছয়টার দিকে সৈকতপাড়ার পাহাড়ের পাদদেশে অবস্থিত জনৈক কামালের ভাড়া বাড়ির ওপর পাহাড়ের বিশাল একটি অংশ আকস্মিক ধসে পড়ে। ওই সময় বাড়িতে ঘুমন্ত অবস্থায় ভাড়াটিয়া রেজাউল করিমের চার বছরের শিশু পুত্র সাকিবসহ অপর দুজন মাটির নিচে চাপা পড়ে।

পরে আশপাশের লোকজন এসে সাকিবসহ অন্যদের মাটির ভেতর থেকে উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার সাকিবকে মৃত ঘোষণা করেন। ওই ঘটনায় আহত হন সাকিবের মা তৈয়বা বেগম ও পাশের অপর ভাড়াটিয়া শফিক উল্লাহর স্ত্রী সানজিদা বেগম। তারা এক বছর আগে পাহাড়ের পাদদেশে ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাস শুরু করেছিল।

গত কয়েকদিনের টানা বর্ষণে কক্সবাজারের রামু, সদর, উখিয়া, টেকনাফ, চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এসব এলাকার কমপক্ষে ৫০টি গ্রামের দুই সহস্রাধিক পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

কক্সবাজার আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ একেএম নাজমুল হক জানান, গভীর সাগরে সঞ্চালনশীল মেঘমালা সৃষ্টির কারণে কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরকে তিন নং স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি অতিবৃষ্টি ও পাহাড় ধসের আশঙ্কাও করেছেন তারা। গত ২৪ ঘণ্টায় ২৪৫ মিমি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে আবহাওয়া অফিস।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।