গাজীপুরে দলীয় প্রিজাইডিং কর্মকর্তা নিয়োগ ও আচারণ বিধির লঙ্ঘনের অভিযোগ বিএনপির

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ৩৯২ জন দলীয় প্রিজাইডিং কর্মকর্তা নিয়োগ  ও সরকার দলীয় লোকজন আচারণ বিধির লঙ্ঘন করেছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ অভিযোগ করে তদন্ত স্বাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়ে নিজেদের নিরপেক্ষতা প্রমাণের জন্য নির্বাচনে সেনা মোতায়েন করতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানান। সোমবার সকালে রাজধানীর ধানমন্ডিতে একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালের উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তিনি একথা বলেন।

উল্লেখ্য, গত ২০১১ সালের আগষ্টে অনিবার্য কারণে পত্রিকাটি বন্ধ করা হয়।

মির্জা ফখরুল বলেন, চার সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সরকার ফলাফল নিজেদের পক্ষে নেয়ার চেষ্টা করলেও জনগণের ঐক্যবদ্ধভাবে তা প্রতিহত করেছে। পত্রিকায় দেখলাম গাজীপুরের নির্বাচনের জন্য ৩৯২ জন দলীয় প্রিজাইডিং কর্মকর্তা নিয়োগ দেয়া হয়েছে।সরকার দলীয় লোকজন নির্বাচনী আচারণ বিধির লঙ্ঘন করছে এবং প্রশাসন বিভিন্নভাবে প্রভাব বিস্তার করছে।

নির্বাচন কমিশনকে এসব বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়ে সুষ্ঠু নির্বাচন এবং নিজেদের নিরপেক্ষতা প্রমাণের জন্য নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের দাবি জানান ফখরুল।

মির্জা ফখরুল অভিযোগ করে বলেন, আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রের কথা বলে তার কণ্ঠ চেপে ধরেছে। গণমাধ্যমের কণ্ঠ রোধ করার ষড়যন্ত্র করছে। তারা ক্ষমতায় আসার পর কয়েকটি টিভি চ্যানেল ও পত্রিকা বন্ধ করেছে। দুর্নীতির বিষয়ে প্রতিবেদন প্রকাশের জন্য শীর্ষ নিউজ সম্পাদককে গ্রেপ্তা করা হয় এবং পত্রিকাটির বন্ধ করে দেয়া হয়।

চার সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নিজেদের সমর্থিত প্রার্থী জয়ী হলেও নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া বিএনপি নির্বাচনে ‍যাবে না বলেও হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন তিনি।

তিনি শীর্ষ নিউজ ডটকমের সাফল্য কামনা করেন।

এ সময় পত্রিকাটির সম্পাদক একরামুল হক ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সাবেক মন্ত্রী গৌতম চক্রবর্তী। বিএফইউজের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব এম আবদুল্লাহ বক্তব্য রাখেন।

পরে কেক কেটে পত্রিকাটির শুভ উদ্ভোধন করেন মির্জা ফখরুল।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।