জামায়াত নেতা ডা: তাহেরের মুক্তি লাভ

ইসলামী ছাত্রশিবিরের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি ও বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় মজলিশে শুরা সদস্য সাবেক এমপি ডা: সৈয়দ আব্দুল্লাহ মো: তাহেরের জামিনে মুক্তি লাভ।

সূত্রে জনা যায় গতকাল রোবাবার হাইকোর্ট থেকে জামিন লাভের পর আজ সোমবার বেলা ৩ ঘটিকার সময় ঢাকা কারাগার থেকে মুক্তি পান।

তাকে  গত ২ জানুয়ারী বুধবার সন্ধা ৭ টায় রাজধানী ঢাকার  খিলগঁওয়ের নিজ বাসা থেকে র‍্যাব-৩ এর একটি দল গ্রেপ্তার করেন। তিনি দীর্ঘ প্রায় ছয় মাস কারাভোগের জামায়াতের এই প্রভাবশালী মুক্তি পান। জানা যায় ওইদিন মালিবাগে জামায়াত একটি মিছিল বের করলে পুলিশ ও জামায়াত-শিবির নেতাকর্মীদের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। বর্তমান সরকারের সময় ডাঃ তাহেরের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন স্থানে সরকার দলীয় লোকদের দায়ের করা প্রায় ৩৯টি মামলার সব কয়টিতে জামিনে থাকলেও মালিবাগে সংঘর্ষের ঘটনায় র‌্যাব সদস্যরা তাকে আটক করে। পরে মধ্যরাতে ডাঃ তাহেরকে রামপুরা থানায় হস্তান্তর করা হয়। পরদিন পুলিশ রামপুরা থানার পৃথক দু’টি মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাকে সিএমএম আদালতে হাজির করে ১২ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত দু’টি মামলায় ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। দীর্ঘদিন কারাগারে থাকায় সম্প্রতি তিনি অসুস্থ্য হয়ে মাথা ঘুরে পড়ে গেলে তাকে পিজি হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগে ভর্তি করা হয়। আদালত ডাঃ তাহেরকে ওই মামলাগুলোতে জামিন দেন। অবশেষে গত রোববার রাত ১০টার দিকে পিজি হাসপাতালে কারাগারের দুই জন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা তার জামিনে মুক্তি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। সোমবার তিনি হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরেন। জামিনে মুক্তি লাভের পর ডাঃ তাহেরকে অভিনন্দন জানান, চৌদ্দগ্রাম উপজেলা জামায়াতের আমীর সাহাব উদ্দিন, জামায়াত নেতা আইয়ুব আলী ফরায়েজী, মেশকাত উদ্দিন সেলিম ও এম ইউসুফসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। ডাঃ তাহেরের জামিন পাওয়ায় সরকার বিরোধী আন্দোলন আরও কঠোর হবে বলে দাবি করেন উপজেলা জামায়াতের প্রচার সম্পাদক বেলাল হোসাইন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।