ঝিনাইদহে ইদুঁর নিধন অভিযানে সফল চাষীদের পুরষ্কার বিতরণ

খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনের ক্ষেত্রে ইদুঁর এখন বড় বাঁধা। এখন আমাদের দেশে খাদ্য ঘাটতির পরিমাণ প্রায় ১৫ লাখ মে.টন। অথচ প্রতিবছর ইদুঁরের আক্রমনে ১২ থেকে ১৫ লাখ টন খাদ্যশষ্য নষ্ট হয়। ইঁদুর যা খায় তার চাইতে ৩ গুণ নষ্ট করে। এছাড়া ইদুঁর প্রায় ৩৩ প্রকার রোগ ছড়ায়। রাস্তা-ঘাট, বাঁধ, সেচ নানা, রেললাইনে গর্ত খুড়ে অবকাঠামোর বিপর্যয় ঘটিয়ে দেশের কোটি কোটি টাকার সম্পদ নষ্ট করে। এক জোড়া ইঁদুর চক্রাকারে বছরে প্রায় ৩ হাজার বাচ্চা প্রসব করে। ফসলের শত্র“, রোগের বাহক, জনস্বাস্থ্য ও নিরাপদ পরিবেশের জন্য হুমকিস্বরুপ এই ইদুঁর আমাদের জাতীয় শত্র“। এজন্য আমাদেরকে অবশ্যই ইঁদুর নিধন করতে হবে।
সোমবার ঝিনাইদহে জাতীয় ইদুঁর নিধন অভিযানে চাষীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে ও জেলা পরিষদের অর্থায়নে এ বছর জেলার ৬৭টি ইউনিয়নে প্রথম স্থান অধিকারীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ঝিনাইদহ জেলা পরিষদ প্রশাসক এ্যাড. আব্দুল ওয়াহেদ জোয়ার্দ্দার, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক জয়নুল আবেদীন, কৃষি কর্মকর্তা আলীমুজ্জামান, আব্দুল মজিদ, হাফিজুর রহমান, আশরাফুল ইসলাম প্রমুখ।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।