রায়পুর সরকারি কলেজে ছাত্রলীগ-ছাত্রদল-ছাত্র শিবিরের সংঘর্ষে আহত-৩০, সড়ক অবরোধ

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর সরকারি ডিগ্রি কলেজে প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র ছাত্রলীগ, ছাত্রদল ও ছাত্র শিবিরের সশস্ত্র নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষে প্রায় ৩০ জন আহত হয়েছে। পরে থানার সামনে প্রধান সড়কে গাছ ফেলে ঘন্টাখানেক অবরোধ করে রাখে ছাত্রশিবির। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। পৌর শহরে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।
আহত হল- উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক হাবিবুর রহমান সুজন পাটওয়ারী, যুগ্ম আহবায়ক আকবর হোসেন সম্রাট, সরকারি কলেজ ছাত্রদলের আহবায়ক ফয়েজ আহাম্মদ পাটওয়ারী, পৌর ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক সালাউদ্দিন হিরণ মিয়াজী, ছাত্রদল নেতা শাহরিয়ার ফয়সাল, আলমগীর হোসেন, মোঃ তারেক, শাহ পরান আরিফ, থানা দক্ষিণের শিবিরের সভাপতি আল মাহমুদ, শিবির কর্মী রিপন, আবদুল আলীম, রিয়াদ হোসেন, সোহাগ, গাজী হোসেন,  জেলা ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক মিরাজুল ইসলাম, সরকারি ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক আজাদ হোসেন রুবেল, শিমুল হায়দার, শাকিল হোসেন, ছাত্রলীগ নেতা মোঃ রাব্বি, শুকর হোসেন ও ফয়সাল হোসেনসহ ৩০ জন। তাদের মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে জখম ও আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আহতরা রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও স্থানীয় ক্লিনিকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও কলেজ শিক্ষার্থীরা জানায়, সকাল ১১টায় এইচএসসির প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে কলেজ কর্তৃপক্ষ। এসময় শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানিয়ে কলেজ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বক্তব্য দেন। তখন বাহিরে ছাত্রদল ও ছাত্র শিবির আনন্দ মিছিল করে। মিছিলটি বন্ধ করে দেয়ার জন্য ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা এগিয়ে গেলে ছাত্রদল ও ছাত্রশিবিরের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এসময় তিন গ্র“পের প্রায় ৩০ নেতাকর্মী মারাত্মক আহত হয়।
সংঘর্ষ আহত নেতাকর্মীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে ছাত্রদল ও শিবির কলেজ ক্যাম্পাস থেকে বের হয়ে থানার সামনে রায়পুর-লক্ষ্মীপুর মহা-সড়ক ঘন্টাব্যাপী অবরোধ করে রাখে। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

কলেজ ছাত্রলীগের আহবায়ক সাইফুল ইসলাম রাজীম জানান, এইচএসসির প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের বরণ অনুষ্ঠানে স্বাগত জানিয়ে বক্তব্য রাখছিল নেতারা। এসময় মাঠে ছাত্রদল ও ছাত্রশিবির মিছিল করছিল। মিছিলে বাধা দেয়ায় তারা আমাদের প্রায় ১২ নেতাকর্মীর ওপর হামলা চালিয়ে আহত করে।
কলেজ শাখা ছাত্রদলের আহবায়ক ফয়েজ আহাম্মদ পাটওয়ারী ও ছাত্রশিবিরের সভাপতি আশ্রাফুল আলম রাছেল বলেন, নবীণদের স্বাগত কলেজ ক্যাম্পাসে আমরা শান্তিপূর্ণভাবে মিছিল করছিলাম। এসময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আমাদের ওপর হামলা চালিয়ে প্রায় ১৫ নেতাকর্মীদের পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করে। তাদেরকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।
রায়পুর সরকারি কলেজের ইংরেজি প্রভাষক গিয়াস উদ্দিন মোবাইল ফোনে জানান, প্রতি বছরের জুলাইয়ের প্রথম দিনে এ ধরণের ঘটনা ঘটেই থাকে। সংঘর্ষটি কলেজ ক্যাম্পাসের বাহিরে হয়েছে।

রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কাসেম চৌধুরী জানান, কলেজে মারামারির ঘটনাটি শুনে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। পরে শিবিরের সড়ক অবরোধটি তুলে ফেলার নির্দেশ দিয়ে তারা চলে যায়।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।